নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় উত্তাল দিল্লির জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, ক্যাম্পাস ছাড়ছেন পড়ুয়ারা

কেন্দ্রের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতায় বিভিন্ন রাজ্যেই আন্দোলন চলছে। সেই আন্দোলনের আঁচ পৌঁছলো রাজধানী দিল্লিতেও। রবিবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় কেন্দ্রের নতুন আইনের বিরোধিতায় বিক্ষোভ দেখান পড়ুয়ারা। যার জেরে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ঢুকে পড়ুয়াদের বেধড়ক মারধর করে দিল্লি পুলিশ। অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শৌচাগারে ঢুকেও পড়ুয়াদের মারধর করে দিল্লি পুলিশ। বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন ছাত্র-ছাত্রীকে পুলিশ আটক করে। মাথার উপর হাত তুলিয়ে বেশ পড়ুয়াদের ক্যাম্পাসের বাইরে বের করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।
রবিবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ দিল্লির প্রচুর বাসিন্দা ও জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের একাংশ নতুন নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় পথে নেমেছিলেন। সূত্রের খবর, সন্ধ্যা ৫ টা নাগাদ কয়েকজন আন্দোলনকারীর সঙ্গে পুলিশের খণ্ডযুদ্ধ বাঁধে। দক্ষিণ দিল্লির আন্দোলনকারীরা রাস্তায় বেরনো কয়েকটি প্রাইভেট গাড়িতে ভাঙচুর চালায় বলে অভিযোগ। তিনটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেয়। আন্দোলনকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটায় পুলিশ। জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের অভিযোগ, মোট দুটি দল রবিবার আন্দোলনে অংশগ্রহণ করে। একটি দলে ছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। যাঁদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস থেকে এক কিলোমিটার দূরে মাতা মন্দির রোডের কাছে পুলিশ বাধা দেয়। তাঁদের উপর লাঠি চালায় পুলিশ। সেই ক্ষুব্ধ আন্দোলনকারীদের একাংশই যান-বাহন পুড়িয়ে দেন। পড়ুয়াদের অভিযোগ, কলেজ ক্যাম্পাসে তাঁরা শান্তিপূর্ণভাবেই মিছিল করছিলেন। কিন্তু ওই বাস পোড়ানোর ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে দিল্লি পুলিশ হঠাৎ বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্যাম্পাসে ঢুকে তাঁদের উপর চড়াও হয়। সন্ধে ৭ টা নাগাদ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে পুলিশে ছয়লাপ হয়ে যায়। এমনকী যে পড়ুয়ারা আন্দোলনে অংশই নেননি, বিনা প্ররোচনায় তাঁদেরও বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ।
আটক হওয়া পড়ুয়াদের দ্রুত ছেড়ে দেওয়ার জন্য দিল্লি পুলিশের সদর দফতর ঘেরাও করেন ছাত্র-ছাত্রীরা। চরম ঠান্ডা উপেক্ষা করে পুলিশের বিরুদ্ধে মিছিল করেন তাঁরা। দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে, ভোর সাড়ে তিনটে নাগাদ আটক হওয়া পড়ুয়াদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।
এদিকে এই ঘটনার প্রতিবাদে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা প্রতিবাদ জানিয়েছেন। রবিবার মধ্যরাতে হায়দরাবাদের মৌলানা আজাদ উর্দু বিশ্ববিদ্যালয়, বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা মিছিল বের করেন। মৌলানা আজাদ উর্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা তাঁদের পরীক্ষা মুলতবিরও দাবি জানিয়েছেন। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারাও মিছিল করেন। দিল্লির উপমুখমন্ত্রী মণীশ শিশোদিয়া দক্ষিণ দিল্লির সমস্ত স্কুল-কলেজ সোমবার বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। পুলিশের আচরণের তীব্র নিন্দা করেছে কংগ্রেস ও বিরোধী দলগুলি।

 

Comments
Loading...