চলুন, বাঘ দেখতে মধ্যপ্রদেশের কানহা অভয়ারণ্যে ঘুরে আসি

একদিকে যেমন রয়েছে অদ্ভুত প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের সমাহার, অন্যদিকে গা ছমছম করা পরিবেশ। এই দু’রকম পরিবেশ দেখতে হলে চট করে ঘুরে আসতেই পারেন মধ্যপ্রদেশ থেকে। মধ্য ভারতের এই রাজ্যে রয়েছে অনেক অভয়ারণ্য। এই অভয়ারণ্যে জঙ্গল সাফারির মাধ্যমে যেমন প্রকৃতির মনোরম শোভা উপভোগ করতে পারবেন, তেমনি দেখা পেয়ে যেতে পারেন বিখ্যাত রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার সহ বিভিন্ন ধরনের পশুপাখির। তাই আর দেরি না করে আজই মধ্যপ্রদেশ ট্যুরিজমের অফিসে এসে বুক করে ফেলুন আপনার পছন্দের জঙ্গল সাফারি।

মধ্যপ্রদেশে যে’কটি অভয়ারণ্য আছে তাদের মধ্যে অন্যতম কানহা ও বান্ধবগড় অভয়অরণ্য। কানহা ভারতবর্ষের সবচেয়ে প্রাচীন ও বৃহৎ অভয়ারণ্যগুলির মধ্যে অন্যতম। এখানে প্রচুর রয়েল বেঙ্গল টাইগার রয়েছে। ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক চ্যানেলের পুরস্কারপ্রাপ্ত ‘ল্যান্ড অফ টাইগার্স’ নামে ডকুমেন্টারির শ্যুটিং হয়েছিল এই কানহাতে। এই জঙ্গলে বাঘ ছাড়াও পর্যটকেরা দেখা পেতে পারেন বড়সিঙ্গা প্রজাতির হরিণ ও চিতা বাঘের।
এ ছাড়াও এই কানহা অভয়ারণ্যে রয়েছে একটি মিউজিয়াম। সেখানে বিভিন্ন প্রজাতির পশু ও সরীসৃপের কঙ্কাল সংরক্ষিত করা আছে। এখানে দেখতে পারেন বিভিন্ন ধরনের বিরল প্রকৃতির গাছের সম্ভার, যা আপনাকে মুগ্ধ করবেই। পর্যটকদের এই জঙ্গল ঘুরিয়ে দেখানোর জন্য রয়েছে বিশেষ সাফারির ব্যবস্থা।
এখানেই অবস্থিত রামায়ণে উল্লিখিত শ্রবণ তাল বা পুকুরের। কথিত আছে, এখানেই নিজের অন্ধ বাবা-মায়ের জন্য জল আনতে এসে অযোধ্যার রাজা দশরথের ছোড়া বানে প্রাণ হারান শ্রবণ কুমার।

কীভাবে যাবেন?

কলকাতা থেকে মধ্যপ্রদেশে যাওয়ার প্রচুর ট্রেন আছে। এছাড়াও ফ্লাইটে রায়পুর পর্যন্ত গিয়ে তারপর ট্যাক্সি নিতে পারেন।

কোথায় থাকবেন?

কানহাতে পর্যটকদের থাকার জন্য রয়েছে সরকারি ও বেসরকারি কটেজ এবং হোটেল। আগে থেকে বুক করে যাওয়াই ভালো।

কীভাবে বুক করবেন?

কলকাতায় মধ্যপ্রদেশ ট্যুরিজমের অফিস আছে। ইচ্ছুক পর্যটকেরা সেখানে যোগাযোগ করতে পারেন।

মধ্যপ্রদেশ স্টেট ট্যুরিজম ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন লিমিটেড

চিত্রকূট বিল্ডিং, রুম নম্বর ৬৭

২৩০এ, এজেসি বোস রোড, কলকাতা ৭০০০২০

ফোন: (০৩৩) ২২৮৭ ৫৮৫৫, ২২৮৩ ৩৫২৬

এ ছাড়া ইমেলের মাধ্যমেও যোগাযোগ করতে পারেন
[email protected]

Comments
Loading...