কাশ্মীরে জনজীবন বিপর্যস্ত, তোলা হোক কার্ফু, মুক্তি দেওয়া হোক রাজনৈতিক নেতাদের, মামলা দায়ের সুপ্রিম কোর্টে

জম্মু-কাশ্মীরের বাসিন্দাদের মৌলিক অধিকার খর্ব হচ্ছে, অঘোষিত কার্ফুর জেরে জনজীবন বিপর্যস্ত, এমনই অভিযোগ করে সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করলেন সমাজসেবী তেহসিন পুন্নাওয়ালা। হলফনামায় তিনি দাবি জানান, গ্রেফতার হওয়া রাজনৈতিক নেতাদের দ্রুত মুক্তি দেওয়া হোক এবং জম্মু-কাশ্মীরে অঘোষিত কার্ফু তুলতে নির্দেশ দিক শীর্ষ আদালত।
জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলোপ করে উপত্যকার বিশেষ মর্যাদা তুলে দিয়ে পৃথক কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করেছে কেন্দ্র। এই প্রেক্ষিতে গত কয়েকদিন ধরেই উপত্যকার স্বাভাবিক জীবন বিঘ্নিত। বন্ধ স্কুল-কলেজ, দোকান-বাজার। এমনকী সরকারি অফিস ও হাসপাতাল পরিষেবা পর্যন্ত পাওয়া যাচ্ছে না। অন্যদিকে, সে রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি এবং ওমর আব্দুল্লা সহ একাধিক বিরোধী নেতাকে গ্রেফতারের খবর পাওয়া গিয়েছে। এই প্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন সমাজকর্মী তেহসিন পুন্নাওয়ালা।
শীর্ষ আদালতে জমা দেওয়া পিটিশনে তিনি জানান, কেন্দ্রের অঘোষিত কার্ফুর জেরে উপত্যকার মানুষের সাংবিধানিক অধিকার খর্ব হচ্ছে। দোকান-বাজার, স্কুল-কলেজ, হাসপাতাল, অফিস বন্ধের ফলে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস থেকে গুরুত্বপূর্ণ কাজ করতে পারছেন না উপত্যকাবাসী। টেলি যোগাযোগ, নেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়ায় গোটা পৃথিবী থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে উপত্যকা। অন্যদিকে, বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাদের ধরপাকড়কে সাধুবাদ জানালেও, যেভাবে ‘মেনস্ট্রিম’ রাজনৈতিক নেতাদের গ্রেফতার করা হয়ছে তার প্রতিবাদ জানিয়ে দ্রুত তাঁদের মুক্তির দাবি করেছেন ওই সমাজকর্মী। সেইসঙ্গে জম্মু-কাশ্মীর থেকে এই অঘোষিত কার্ফু প্রত্যাহারের জন্য সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশিকার আবেদন করেছেন সমাজকর্মী তেহেসিন পুন্নাওয়ালা।

Comments
Loading...