‘গান্ধীর হত্যাকারীরাই আজ তাঁর আদর্শ ছিনতাইয়ে মরিয়া’, বিজেপি-সঙ্ঘকে তীব্র কটাক্ষ কেরলের মুখ্যমন্ত্রীর

মহাত্মা গান্ধীর হত্যাকারীরাই আজ তাঁর আদর্শ অনুসরণের চেষ্টা করছেন, তাঁকে নিজেদের করতে চাইছেন। গান্ধী জয়ন্তীতে বললেন কেরলের বামপন্থী মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। বুধবার ফেসবুকে গান্ধীজির ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে বিজয়ন লেখেন, ‘গান্ধীজি, জাতির জনক’। গান্ধীজির ১৫০ তম জন্মবার্ষিকী কেন তাৎপর্যপূর্ণ তার ব্যাখ্যায় যান কেরলের মুখ্যমন্ত্রী। এরপরেই নাম না করে বিজেপি ও আরএসএসকে নিশানা করেন সিপিএম পলিটব্যুরো সদস্য। তিনি লেখেন, গান্ধীর হত্যাকারীরাই এখন তাঁকে নিজেদের করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। মহাত্মা গান্ধীর বলা শব্দকে নিজেদের প্রয়োজনমাফিক ব্যাখ্যা করতে চায় তারা। পিনারাই বিজয়নের আহ্বান, এই অবস্থায় প্রত্যেক ভারতবাসীর অঙ্গীকার হোক জাতির জনক গান্ধীজি ও তাঁর ভাবনাকে রক্ষা করা।
কিছুদিন আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ভারতের জনক বলে মন্তব্য করেছিলেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যা নিয়ে তীব্র শোরগোল পড়ে যায় দেশের রাজনৈতিক মহলে। অনেকেই ট্রাম্পের সমালোচনা করেন। নেটিজেনরা ফটোশপে মহাত্মা গান্ধীর ছবিতে মোদীর চাপদাড়ি জুড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন। অন্যদিকে, প্রধানমন্ত্রী দফতরের প্রতিমন্ত্রী জিতেন্দ্র সিংহ এই বিতর্ক উস্কে দিয়ে বলেন, মোদীকে ভারতের জনক বলায় যারা ট্রাম্পকে কটাক্ষ করছেন, তাঁরা ভারতীয়ই নন। ট্রাম্পের আগে অবশ্য গান্ধীর আসনে মোদীকে বসিয়েছিলেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিসের স্ত্রী অমৃতা ফড়নবিস। ট্যুইটারে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে অমৃতা তাঁকে দেশের পিতা বলে সম্বোধন করেন। এই আবহে কেরলের মুখ্যমন্ত্রী তথা সিপিএম নেতা পিনারাই বিজয়নের ফেসবুক বার্তা বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। আর গান্ধীজির প্রপৌত্র তুষার গান্ধীর কটাক্ষ, যাঁরা জাতির জনকের স্থানে নতুন কাউকে বসাতে চান তাঁদেরকে স্বাগত। ট্রাম্পও চাইলে নিজেকে জর্জ ওয়াশিংটনের জায়গায় নিজেকে বসাতে পারেন।
অন্যদিকে, ১৫০ তম জন্মবার্ষিকীতে মহাত্মা গান্ধীকে শ্রদ্ধা জানাতে বুধবার সকালেই রাজঘাট যান প্রধানমন্ত্রী মোদী। এরপর সবরমতী আশ্রমেও যান। আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত গান্ধীর সার্ধশতবর্ষে শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে বলেন, আমাদের সকলেরই গান্ধীজির দর্শন অনুসরণ করা উচিত।

Comments
Loading...