সাবরীমালা বিতর্কের মাঝে কেরলে পুর-নির্বাচনে সাফল্য সিপিএমের, মন্দির এলাকায় বিজেপি পেল মাত্র ১৯ ভোট

সাবরীমালা ইস্যুতে রাজ্যজুড়ে লাগাতার উত্তাল অবস্থার মধ্যেই প্রায় নিঃশব্দে হয়ে গেল কেরলে একাধিক জেলায় পুরসভার উপনির্বাচন। সুপ্রিম কোর্টের রায়ের প্রতিবাদে বিজেপি যেভাবে কেরলে রাস্তায় নেমেছে এবং হিন্দুত্বের স্লোগান তুলে আগ্রাসী অবস্থান নিয়েছে, তাকে প্রতিহত করে এই উপনির্বাচনে ভাল রেজাল্ট করল সিপিএম।
শুধু তাই নয়, পঠ্যনমথিত্য জেলার ২ টি ওয়ার্ডে বিজেপি পেয়েছে মাত্র ১৯ টি ভোট, যেখানে সাবরীমালা মন্দির অবস্থিত। অন্যদিকে, পন্ডাল পৌরসভায় কাডাক্কাড ওয়ার্ডে বিজেপি পেয়েছে মাত্র ১২টি ভোট, যা সাবরীমালা প্রতিবাদের কেন্দ্রস্থল। পাশাপাশি, পঠ্যনমথিত্য পৌরসভার কুলেশখরপতনম ওয়ার্ডে বিজেপি প্রার্থী পেয়েছে মাত্র ৭ ভোট । ত্রিপিনিথুর পৌরসভায়ও বিজেপি কোনও আসন লাভ করতে পারেনি, যেখানে সাবরীমালা রায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের একটি ধারাবাহিকতা তৈরি হয়েছিল।
কেরলের স্থানীয় উপনির্বাচনের ফলাফল (লোকাল বডি বাই-পোল) বেশ স্পষ্ট ইঙ্গিত দিল, উত্তর প্রদেশের সাম্প্রদায়িকতার রাজনীতি, রাম মন্দিরের দাবিতে সমাবেশ বা সাবরীমালা রায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ অন্তত এখনও পর্যন্ত সিপিএম শাসিত কেরলে বিশেষ প্রভাব ফেলতে পারেনি। কেরলের পাঠ্যনমথিত জেলা, যা কিনা সাবরীমালা মন্দির ইস্যুতে প্রতিবাদের কেন্দ্রভূমিতে পরিণত হয়েছিল, সেখানে মানুষ রায় দিলেন বিজেপির বিপক্ষে। পুরসভা নির্বাচনের মোট ৩৯ টি আসনের মধ্যে সিপিএমের নেতৃত্বে বাম দলগুলি পেয়েছে ২১ টি আসন, কংগ্রেস ১২ টি আসন নিয়ে আছে দ্বিতীয় স্থানে। আর ভারতীয় জনতা পার্টি সাবরীমালা নিয়ে কেরলের নির্বাচনী রাজনীতিতে আধিপত্য বিস্তারের আশা নিয়ে পেয়েছে মাত্র ২ আসন। সাবরীমালা ইস্যুতে কেরলা সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ তরান্বিত করতে বিজেপি অগ্রণী ভূমিকা নেওয়ার পরও দেখা যাচ্ছে, ত্রিচুর, কোজিকোড, পালাক্কাড ও কাসারগোডে সবকটি আসন জিতে নিয়েছে সিপিএম।
সাবরীমালা ইস্যুতে বিরোধীদের তীব্র আন্দোলনের মাঝেও কড়া অবস্থান নিয়েছে কেরলের পিনারাই বিজয়ন সরকার। লোকসভা নির্বাচনের আগে কেরলেও সিপিএমের সঙ্গে আরএসএস-বিজেপির তীব্র লড়াইয়ের একটা পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক মহল। এই অবস্থায় পুরসভার ৩৯ টি আসনে উপনির্বাচনের ফলাফল যথেষ্টই তাৎপর্যপূর্ণ। যদিও কেরল বিজেপির সাধারণ সম্পাদক এ এন রাধাকৃষ্ণণ আলাপপুঝায় ২ টি নতুন আসন পাওয়াকে আগামী দিনে কী ঘটবে তার প্রবণতা বলে ব্যাখ্যা দিয়েছেন। কেরলে বাম ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্ট (এলডিএফ) সবকটি জেলাতেই ভালো ফল করলেও, একমাত্র আলাপপুঝা জেলার দুটি আসনে জিতেছে বিজেপি, যেখানে বিক্ষোভ ক্রমশ হ্রাস পেয়েছে। অন্যদিকে, কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন বিরোধী দল ইউনাইটেড ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্ট (ইউডিএফ) সাবরীমালা মন্দিরে ১০ থেকে ৫০ বছর বয়সী মেয়েদের প্রবেশের বিরুদ্ধে ভক্তদের অবস্থানকে সমর্থন করে নিজেদের ক্ষতিসাধন করেছে বলেই এই ফলে ইঙ্গিত মিলেছে। বিজেপি ২ টি আসনই জিতেছে কংগ্রেসকে হারিয়ে।

Comments
Loading...