৯ বছর পুরনো দেশদ্রোহ মামলায় মাও নেতা কোবাড ঘান্ডির ৩১ শে অগাস্ট পর্যন্ত পুলিশ হেফাজত

প্রায় ১ দশকের পুরনো রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলায় মাওবাদীদের তাত্ত্বিক নেতা হিসেবে পরিচিত কোবাড ঘান্ডিকে গ্রেফতার করল সুরাট পুলিশ। সোমবার ট্রান্সফার ওয়ারেন্টের ভিত্তিতে ঝাড়খণ্ডের হাজারিবাগ জেল থেকে মাওবাদী নেতা কোবাড ঘান্ডিকে সুরাটের জেলে নিয়ে যাওয়া হয়। অর্থাৎ হাজারিবাগ জেলে দীর্ঘদিন কাটানোর পর এবার কোবাড ঘান্ডির ঠিকানা হতে চলেছে সুরাটের কোনও জেল। মঙ্গলবার সুরাটের আদালত তাঁকে ৩১ শে অগাস্ট পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে।
গুজরাত পুলিশ সূত্রে খবর, দক্ষিণ গুজরাতে মাওবাদী কার্যকলাপ ছড়ানোর অভিযোগে ৯ বছর আগে কোবাড ঘান্ডি সহ ২৫ জনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলা দায়ের হয়। সেই মামলার সূত্র ধরেই সোমবার সিপিআই মাওবাদী শীর্ষ নেতাকে সুরাটের জেলে নিয়ে যাওয়া হয়।
ডেপুটি পুলিশ সুপার সি এম জাদেজা জানান, ৬৮ বছর বয়সী মাও নেতাকে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এইচ আর ঠাকোরের এজলাসে হাজির করার পর, বিচারপতি তাঁকে সুরাট পুলিশের হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
২০১০ সালে গুজরাতের সুরাট জেলার কামরেজ থানায় কোবাড ঘান্ডি সহ ২৫ জনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলা রুজু হয়। অভিযোগ ওঠে, দক্ষিণ গুজরাতে মাওবাদী ভাবধারা ছড়াচ্ছেন কোবাড ঘান্ডিরা। এই মামলায় মাওবাদী নেতা কোবাড ঘান্ডির আগে ২৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। একমাত্র সীমা হিরানী নামে এক অভিযুক্ত এখনও ধরা পড়েনি বলে জানান ডেপুটি পুলিশ সুপার। ধৃতদের বিরুদ্ধে সরকার বিরোধিতা, রাষ্ট্রদ্রোহিতা, অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র সহ বেআইনি কার্যকলাপ প্রতিরোধ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
১৯৫১ সালে মুম্বইয়ের সম্ভ্রান্ত পার্সি পরিবারে জন্ম নেওয়া কোবাড ঘান্ডির সঙ্গে বামপন্থী রাজনীতির পরিচয় হয় দেশের বাইরে। সে সময় চাটার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্সি নিয়ে ইংল্যান্ডে পড়াশোনা করছেন তিনি। বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে মার্কসবাদীদের লড়াই তাঁকে প্রবল আকৃষ্ট করেছিল। পারিবারিক ব্যবসার পথে না গিয়ে, দেশে ফিরেই গ্রাম ও শহরের গরিব মানুষদের সংগঠিত করার কাজ করতে শুরু করেন। ইন্দিরা গান্ধীর আমলে মাওবাদী সংগঠনের সঙ্গে পুরোপুরি জড়িয়ে পড়েন তিনি। সে সময় কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের মধ্যে মাওবাদী আদর্শের প্রচারে অন্যতম ভূমিকা নিয়েছিলেন কোবাড ঘান্ডি ও তাঁর স্ত্রী অধুনা প্রয়াত অনুরাধা ঘান্ডি। জরুরি অবস্থার পর কোবাড ও তাঁর স্ত্রী অনুরাধা, আসগর আলি ইঞ্জিনিয়ার ও ইকনমিক অ্যান্ড পলিটিকাল উইকলির তৎকালীন সম্পাদক কৃষ্ণরাজ মিলে তৈরি করেন মুম্বইয়ের প্রথম গণতান্ত্রিক অধিকার গোষ্ঠী যা পরে কমিটি ফর দ্য প্রোটেকশন অফ ডেমোক্র্যাটিক রাইটস (সিপিডিআর)-এ রূপান্তরিত হয়।

Comments
Loading...