‘কলকাতার হাওড়া ব্রিজ বরাবরের মতন সুন্দর’, নয়া আলোকসজ্জা নিয়ে ফেসবুকে প্রতিক্রিয়া প্রধানমন্ত্রীর

দুদিন আগেই টোকিও অলিম্পিক উপলক্ষ্যে নতুন আলোকসজ্জায় সেজে উঠেছে হাওড়া ব্রিজ। হাওড়া ব্রিজের নতুন আলোকমালা দেখে মুগ্ধ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। নিজের অনুভূতিত কথা শেয়ার করলেন ফেসবুকে। লিখলেন, Kolkata’s Howrah Bridge, looking spectacular as always, gives the message of #Cheer4India.অর্থাৎ কলকাতার হাওড়া ব্রিজ বরাবরের মতন সুন্দর।

টোকিও অলিম্পিক উপলক্ষ্যে দুদিন আগেই সেজে উঠেছে কলকাতার চির ঐতিহ্য হাওড়া ব্রিজ। বিভিন্ন সময় এই সেতুতে নতুন নতুন রঙয়ের ঝলক দেখা যাচ্ছে। অলিম্পিক্সে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন দেশের জাতীয় পতাকার রঙে সেজে উঠেছে হাওড়া ব্রিজ। কলকাতা শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জির বন্দরের আধিকারিকদের উদ্যোগেই রঙিন হয়ে উঠেছে কলকাতার রবীন্দ্র সেতু অর্থাৎ হাওড়া ব্রিজ।

এই বিষয়ে বন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, খোদ প্রধানমন্ত্রীভালো নরেন্দ্র মোদীকে খুশি করতে পেরে ভালো লাগছে। টোকিও অলিম্পিক্স গত বছর অনুষ্ঠিত হয়নি কোভিডের কারণে। কিন্তু এই বছর হচ্ছে। যে পাঁচটা মহাদেশ অলিম্পিকে অংশ নিচ্ছে, তাদের পতাকার রঙ আলোকসজ্জার মাধ্যমে তুলে ধরা হচ্ছে। এছাড়াও আয়োজন দেশ হিসেবে জাপানের জাতীয় পতাকা থেকে শুরু করে সবকিছু আলাদা ভাবে তুলে ধরা হয়েছে। এই ৫ টি মহাদেশের সঙ্গে ভারতের জাতীয় পতাকার রঙের আলোয় আরও উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে হাওড়া ব্রিজ। ভারতীয় ক্রীড়াবিদদের উৎসাহ দিতেই এই উদ্যোগ বলে জানা গেছে।

গত বছর ১১ জানুয়ারি হাওড়া ব্রিজের নতুন আলোকসজ্জার উদ্বোধন করছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিশেষ বিশেষ দিনে আলোকমালায় সেজে ওঠে রবীন্দ্র সেতু। স্বাধীনতা দিবস, প্রজাতন্ত্র দিবস থেকে শুরু করে দুর্গাপুজো, দেওয়ালির সময় সাজিয়ে তোলা হয় এই সেতুকে। এছাড়াও কিছু ইন্টারন্যাশনাল ডে তেও সাজিয়ে তোলা হয় হাওড়া ব্রিজকে।

বন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এটাকে টেকনিক্যালি বলা হয় ডায়নামিক আর্কিটেকচার অফ লাইটিং। যে কয়েকদিন অলিম্পিক চলবে, সেই কয়েকদিন এই আলোকসজ্জা দেখতে পাওয়া যাবে।

Comments
Loading...