চিটফান্ড মামলায় অবিলম্বে শোভনকে গ্রেফতারের দাবি কুণালের, কী অভিযোগ তাঁর?

'শোভনকে আমার মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করুক কেন্দ্রীয় সংস্থা,' চ্যালেঞ্জ কুণাল ঘোষের

আইকোর অর্থলগ্নী সংস্থার প্রমোটার হয়ে কাজ করেছেন কলকাতার প্রাক্তন মেয়র ও অধুনা বিজেপি নেতা শোভন চ্যাটার্জি। মেয়রের চেয়ারে বসে তোয়ালে জড়িয়ে নারদার টাকা নিয়েছেন তিনি। সারদা কাণ্ডেও তিনি জড়িত। তা হলে কেন শোভন চ্যাটার্জিকে গ্রেফতার করবে না কেন্দ্রীয় সংস্থা? মঙ্গলবার সাংবাদিক সম্মেলন করে এমনই দাবি তুললেন তৃণমূলের মুখপাত্র ও প্রাক্তন সাংসদ কুণাল ঘোষ। তাঁর এই দাবির স্বপক্ষে কুণাল একসময়ে রাজনৈতিক সতীর্থ শোভনের আইকোর সংস্থার অনুষ্ঠানে উপস্থিতির ছবি তুলে ধরেন সাংবাদিকদের সামনে।

কুণাল ঘোষের দাবি, সিবিআই তাঁকে যে হলফনামা দিয়েছে তাতে কোথাও তাঁকে দোষী বলা হয়নি। কিন্তু যে শোভন, মুকুলের মতো নেতারা তৃণমূল ত্যাগ করে বিজেপিতে গিয়েছেন এবং চিটফান্ড কাণ্ডে সরাসরি জড়িত, কেন তাঁদের বিরুদ্ধে তদন্ত করছে না সিবিআই ও ইডি? প্রশ্ন কুণালের। তাঁর অভিযোগ, শোভন চ্যাটার্জি বৃহত্তর ষড়যন্ত্রে যুক্ত। তাই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে তিনি আবেদন করে জানিয়েছেন এঁদের কেন গ্রেফতার করা হবে না?

কুণাল ঘোষ এদিন প্রশ্ন তোলেন, সারদায় এক কোটি টাকা পেয়েছে কে? তিনি দাবি করেন, সারদা, নারদা, আইকোর কাণ্ডের দ্রুত তদন্ত হোক। শোভনের সামনাসামনি বসিয়ে তাঁকে জেরা করুক কেন্দ্রীয় সংস্থা। সোমবার তৃণমূলের উদ্দেশে শোভনের আক্রমণাত্মক মন্তব্যকে কটাক্ষ করে কুণালের পাল্টা তোপ, কাচের ঘরে বসে শোভন ঢিল ছুড়লেন। বৃহত্তর ষড়যন্ত্রের সঙ্গে তিনি নিজেই যুক্ত। কুণালের কটাক্ষ, কতবড় ব্যবসায়ী ছিলেন শোভন যে তাঁর এত সম্পত্তির বাড়বাড়ন্ত হয়েছে?

কুণালের কথায়, কলকাতা পুরসভার মেয়র হয়ে নেতাজি, চিত্তরঞ্জন দাসের চেয়ারকে কলঙ্কিত করেছেন শোভন। এদিন কুণাল ঘোষের মন্তব্যে উঠে আসে আইপিএস রাজীব কুমারের প্রসঙ্গ। বলেন, আমি আগেও বলেছি এখনও বলছি রাজীব কুমার চিটফান্ড তদন্তে প্রভাবশালীদের আড়াল করেছেন। এই প্রভাবশালীদের মধ্যে ছিলেন মুকুল রায়, শেভন চ্যাটার্জি। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের উদ্দেশে কুণালের মন্তব্য, ‘আপনি কী করে শোভনের পাশে থেকে রাজনীতি করছেন? তদন্ত থেকে বাঁচতেই শোভন বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। দিলীপ বাবুদের বলছি কেন পাপীদের মঞ্চ ব্যবহার করতে দিচ্ছেন? কটাক্ষ তৃণমূল মুখপাত্রের।

Comments
Loading...