হাতে আঁকা ছবি সঙ্গে ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য! সৌরভের হাসপাতাল মুক্তির দিন ফেসবুকে কী লিখলেন লক্ষ্মীরতন?

মন্ত্রিত্ব ত্যাগের পর প্রথম ফেসবুক পোস্ট

সকালে উডল্যান্ডস হাসপাতাল থেকে ছুটি পেয়ে বেহালার বাড়িতে ফিরেছেন সৌরভ গাঙ্গুলি। কাকতালীয় হলে ঠিক ওই সময়েই ইঙ্গিতপূর্ণ ফেসবুক পোস্ট করলেন দলবদলের জল্পনা তোলা লক্ষ্মীরতন শুক্ল। এমন কিছুই লেখেননি যা পড়ে চোখ কপালে উঠতে পারে। কিন্তু আলগোছে বলা এই কথাগুলোতে কি লুকিয়ে গভীর কোন ইঙ্গিত? এখন সেই প্রশ্নেই তোলপাড়। 

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০ টা নাগাদ হাসপাতাল থেকে বেরোন মহারাজ। আলিপুরের উডল্যান্ডস হাসপাতালের সামনেটা ততক্ষণে দাদার অনুরাগীদের দখলে। বিপুল হর্ষধ্বনির মধ্যে দিয়ে সৌরভকে নিয়ে ডোনা রওনা দেন বেহালার বীরেন রায় রোডের দিকে। 

কাকতালীয় ভাবে ঠিক সেই সময়েই ফেসবুকে নিজের পেজে একটি হাতে আঁকা ছবি পোস্ট করেন লক্ষ্মীরতন শুক্ল। তাতে লেখেন, সত্যিকারের নেতা তিনি, যিনি শুধু নিজে খেলেন না, দলকে খেলতে উদ্বুদ্ধ করেন। হাতে আঁকা ছবিটি লক্ষ্মীকে কে পাঠিয়েছে তা জানা না গেলেও, সৌরভের হাসপাতাল মুক্তির দিনেই এই ছবি ও নিরীহ এক লাইন রাজ্য রাজনীতিতে তোলপাড় ফেলে দিয়েছে। 

মঙ্গলবার আচমকা রাজ্য মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন লক্ষ্মীরতন শুক্ল। মুখ্যমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে লক্ষ্মী জানান তিনি খেলার জগতে ফিরতে চান। তাই রাজনীতি থেকে আপাতত সন্ন্যাস নিচ্ছেন। কিন্তু সেই সঙ্গেই তাঁর বিজেপি যোগের জল্পনা ডানা মেলে। জল্পনায় যুক্ত হয় বৈশালী ডালমিয়া, রথীন চক্রবর্তীদের নাম। 

কিছুদিন আগেই সিএবির বার্ষিক সাধারণ সভায় আচমকা হাজির হন লক্ষ্মীরতন শুক্ল। প্রশ্ন উঠতে শুরু করে লক্ষ্মী কি ক্রীড়া প্রশাসনে ফিরছেন? 

ইদানীং লক্ষ্মীর ক্যাপ্টেন সৌরভের রাজনীতিতে প্রবেশ নিয়ে ব্যাপক জল্পনা চলছে। এই প্রেক্ষিতে লক্ষ্মী দল ও মন্ত্রীপদ ছেড়ে ক্রীড়া জগতে ফিরবেন বলে জানাচ্ছেন। বলছেন সাময়িক রাজনৈতিক সন্ন্যাস। স্বভাবতই রাজ্য রাজনীতিতে নতুন করে শুরু হয়েছে জল্পনা। তাহলে কি ফুল টিম নিয়ে বিজেপিতে যাচ্ছেন দাদা?

সেই জল্পনায় এখনও জল পড়েনি। সৌরভের হাসপাতাল মুক্তির দিনে লক্ষ্মীর আপাত সাধারণ একটি লাইন তাতে নতুন করে ঘি ঢেলেছে। ক্যাপ্টেনকে কী বলতে চাইলেন লক্ষ্মী? অধিনায়কের প্রশংসা করে কী নির্দিষ্ট কোন ইঙ্গিত করলেন সদ্য পদত্যাগী মন্ত্রী?

Comments
Loading...