‘ক্ষমা না চাইলে আদালতে দেখা হবে,’ বাবুলকে আইনি নোটিস অভিষেকের

দুর্নীতি নিয়ে তৃণমূল সাংসদকে আক্রমণ করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

৭২ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমা চাইতে হবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে তথা আসানসোলের বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়কে। নাহলে মামলা দায়েরের হুঁশিয়ারি দিয়ে আইনি নোটিশ পাঠাচ্ছেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জি। কিন্তু কেন এই আইনি নোটিস?
গত ৩১ ডিসেম্বর গরু ও কয়লা পাচারকাণ্ডে নাম করে ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেককে আক্রমণ করেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। বাবুল সুপ্রিয়। এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতেই তাঁকে আইনি নোটিস পাঠালেন অভিষেক। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমা না চাইলে মামলার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে তাঁকে।
বিভিন্ন প্রসঙ্গে বারবার বিজেপি নেতারা সুর চড়িয়েছেন অভিষেকের বিরুদ্ধে। কেউ কয়লা পাচারের অভিযোগ, কেউ আবার আমফানের দুর্নীতিতেও নাম না করে আক্রমণ শানিয়েছেন। এই প্রেক্ষিতে কিছুদিন আগে ডায়মন্ড হারবারের সভা থেকে বিরোধী বিজেপি নেতাদের সতর্ক করার পাশপাশি অভিষেক বলেছিলেন, ক্ষমতা থাকলে ‘ভাইপো’র নাম বলতে। সেদিনই আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন তিনি। এরপরই রাখ- ঢাক না করে সরাসরি অভিষেককে আক্রমণ করেন বাবুল সুপ্রিয়। বলেন, ‘আমি নাম করেই বলছি, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় দুর্নীতিগ্রস্ত। কয়লাপাচার-সহ একাধিক বেআইনি কাজে ওনার যোগ রয়েছে। উনি তোলাবাজ।’
উল্লেখ্য, ‘গুন্ডা’ কটাক্ষ করায় বেশ কিছুদিন আগে অভিষেককে আইনি নোটিস পাঠিয়েছিলেন দিলীপ ঘোষ। অন্যদিকে এর আগেও আসানসোলের কয়লা দুর্নীতিতে অভিষেকের নাম জড়িয়ে আক্রমণ করায় বাবুলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিলেন তৃণমূল সাংসদ।

Comments
Loading...