নির্বাচন কমিশনারের পদ থেকে ইস্তফা অশোক লাভাসার, রাজনৈতিক চাপ? বিতর্ক

কার্যকালের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে জাতীয় নির্বাচন কমিশনারের পদ থেকে ইস্তফাই দিলেন অশোক লাভাসা। মঙ্গলবার তিনি পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে। ২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গ, অসম, কেরল সহ গুরুত্বপূর্ণ একাধিক রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের আগেই কমিশনারের পদ ছাড়লেন লাভাসা।
২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের প্রচারে নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহের বিরুদ্ধে নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগ ওঠে। সেখানে নির্বাচন কমিশনের বাকি দুই সদস্য মোদী-শাহকে ক্লিনচিট দিলেও একমাত্র লাভাসা এর বিরোধিতা করেছিলেন। পরবর্তীতে লাভাসার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে আয়কর ফাঁকি দেওয়ার একাধিক অভিযোগ ওঠে। এর মধ্যে কার্যকালের মেয়াদ শেষের আগেই তাঁর নির্বাচন কমিশনারের পদ ছেড়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তের পিছনে রাজনৈতিক চাপ আছে কিনা সে প্রশ্ন উঠেছে। এখন এশিয়ান ডেভলপমেন্ট ব্যাঙ্ক (এডিবি) এর ভাইস প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নিচ্ছেন অশোক লাভাসা। গত জুলাই মাসেই অবশ্য আনুষ্ঠানিক ভাবে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্কে তাঁর নিয়োগের কথা ঘোষণা করা হয়েছিল।
২০২২ সালে অক্টোবর মাসে নির্বাচন কমিশনারের পদ থেকে অবসর নেওয়ার কথা ছিল অশোক লাভাসা। পরবর্তী মুখ্য নির্বাচন কমিশনার হওয়ার দৌড়েও তিনি প্রথমে ছিলেন। কিন্তু ২ বছর কার্যকালের মেয়াদ বাকি থাকতেই পদ ছাড়লেন লাভাসা। এর আগে, ১৯৭৩ সালে মেয়াদ শেষের আগেই মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন নাগেন্দর সিংহ।

Comments
Loading...