নজিরবিহীন জোটবার্তা সিপিএমের! কংগ্রেসের জেতা ৪ আসন ছেড়ে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা আলিমুদ্দিনের

নজিরবিহীন জোটবার্তা দিয়ে রাজ্যের ৩৮টি আসনে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করল বামফ্রন্ট। গতবার কংগ্রেসের জেতা মালদা উত্তর ও দক্ষিণ, জঙ্গিপুর এবং বহরমপুর আসনে কোনও প্রার্থী দেওয়া হল না।

এমাসের গোড়াতেই কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকে সিপিএম সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, যে একে অপরের বিরুদ্ধে প্রার্থী দেওয়া হবে না। রাজ্যে তৃণমূল এবং বিজেপি বিরোধী ভোট ভাগ হওয়া ঠেকাতে কংগ্রেসের সঙ্গে আসন সমঝোতায় মরিয়া ছিল আলিমুদ্দিন স্ট্রিট। কংগ্রেসের সঙ্গে আলোচনা চলছিল বলে নির্বাচন ঘোষণার পরেও তিন-চারদিন প্রার্থী ঘোষণা করেনি বামফ্রন্ট। গত শুক্রবার কংগ্রেসের জেতা চারটি এবং আরও ১৩ টি আসন ছেড়ে মোট ২৫ টি কেন্দ্রে প্রার্থী ঘোষণা করে বামফ্রন্ট। কিন্তু নজিরবিহীনভাবে সোমবার সিপিএমের জেতা রায়গঞ্জ আসন সহ রাজ্যের ১১ টি কেন্দ্রে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে দেয় কংগ্রেস। যার প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার বামফ্রন্ট আরও ১৩ কেন্দ্রে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করল। কিন্তু রাহুল-সনিয়াকে সুস্পষ্ট বার্তা দিতে গতবার কংগ্রেসের জেতা ৪ আসনে প্রার্থী দেওয়া হল না।

ইতিমধ্যেই তামিলনাড়ু, বিহার ও মহারাষ্ট্রে কংগ্রেসের ৩ সহযোগী শক্তি ডিএমকে, আরজেডি এবং এনসিপির সঙ্গে আসন রফা করেছে সিপিএম। এই ৩ রাজ্যেই বিজেপি বিরোধী ভোট ভাগ হওয়া রুখতে একাধিক আসন ছেড়েও দিয়েছে বামেরা। সিপিএমের যুক্তি, বিজেপি বিরোধী ভোট ভাগ হওয়া রুখতে বামেরা যদি অন্য রাজ্যে আত্মত্যাগ করতে পারে, তাহলে কংগ্রেস পশ্চিমবঙ্গে কার স্বার্থে সিপিএমের জেতা আসনে প্রার্থী দিচ্ছে? প্রসঙ্গত রায়গঞ্জের সিপিএম প্রার্থী মহম্মদ সেলিম, সোমবারই বলেছিলেন কংগ্রেসের মধ্যে একটি দালালচক্র কাজ করছে, যারা আসন সমঝোতা ভেস্তে দিয়ে বিজেপির সুবিধে করে দিতে চায়।

সিপিএম যেভাবে ৪ টি আসন ছেড়ে রেখে এখনও কংগ্রেসের প্রতি জোটবার্তা দিল, তাতে বল এখন পুরোপুরি রাহুল-সনিয়ার কোর্টে। বামেদের এই সিদ্ধান্তের পর রাহুল-সনিয়া কি বৃহত্তর স্বার্থে আসন সমঝোতা মেনে নেবেন, নাকি জেদ বজায় রেখে চতুর্মুখী লড়াইয়ের দিকেই টেনে নিয়ে যাওয়া হবে, সেটাই এখন দেখার।

মঙ্গলবার আলিমুদ্দিন স্ট্রিটে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেন। কলকাতা উত্তর কেন্দ্রে বাম প্রার্থী হচ্ছেন কনীনিকা ঘোষ, বারাকপুরে বামেদের হয়ে লড়বেন গার্গী চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল আসনে প্রার্থী হচ্ছেন গৌরাঙ্গ চট্টোপাধ্যায়, বাঁকুড়ায় বামপ্রার্থী অমিয় পাত্র, বোলপুরে সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রামচন্দ্র ডোম, হাওড়ায় সুমিত্র অধিকারী, শ্রীরামপুরে তীর্থঙ্কর রায় এবং কৃষ্ণনগরে বামফ্রন্ট প্রার্থী হচ্ছেন শান্তনু ঝাঁ।

Comments
Loading...