‘একঝাঁক বানরের মাঝে সিংহির মত দাঁড়িয়ে তিনি’, তৃণমূল নেত্রীকে নিয়ে ট্যুইট মহুয়া মৈত্রের

বিজেপিকে নিশানা মহুয়া মৈত্রের

ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে নেতাজির ১২৫তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন অনুস্থানে জয় শ্রী রাম ধ্বনিকে কেন্দ্র করে তৈরি হওয়া বিতর্কে বিজেপিকে  একহাত নিলেন সাংসদ মহুয়া মৈত্র। তিনি বিজেপিকে কটাক্ষ করে ট্যুইটে লেখেন, ‘একঝাঁক বানরের মাঝে সিংহির মত দাঁড়িয়ে রইলেন তিনি’। তিনি আরও জানান, ‘মমতার দলের সদস্য হিসেবে এর আগে কখনও এতটা গর্বিত হননি।

২৩ জানুয়ারি ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে নেতাজির ১২৫তম জন্মজয়ন্তী উদযাপনের আয়োজন করে কেন্দ্রীয় সরকার। মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী, মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। বক্তৃতার জন্য মুখ্যমন্ত্রীর নাম ঘোষণা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই দর্শক আসন থেকে জয় শ্রীরাম ধ্বনি উঠে আসে। সঞ্চালক শান্ত থাকার কথা বললেও দর্শকদের একাংশ তা কর্ণপাত করেননি। ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বক্তব্য না রাখার সিদ্ধান্ত নেন। একুশের ভোটের  মুখে দাঁড়িয়ে এরকম ঘটনায় তোলপাড় শুরু হয়েছে রাজ্য তথা দেশের বিভিন্ন মহলে।

এই ঘটনা নিয়ে নিয়ে ট্যুইট করে বিজেপিকে একহাত নিয়েছেন তৃণমূলের কৃষ্ণনগরের সাংসদ মহুয়া মৈত্র। মমতা ব্যানার্জিকে সিংহির সঙ্গে তুলনা টেনে ট্যুইট করেন তিনি। কটাক্ষ করেন বিজেপিকে।

এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে গায়ক তথা তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ কবীর সুমন রাস্তায় নামেন। জয় বাংলা লেখা পোস্টার হাতে তিনি গড়িয়া মোড়ে দাঁড়ান, তাঁর সঙ্গে অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ ও দেবলীনাকেও দেখা যায়। তৃণমূলের অন্য দুই সাংসদ নুসরত জাহান এবং ডেরেক ও’ব্রায়েনও ঘটনার প্রতিবাদে সোচ্চার হন ট্যুইটারে। ঘটনার প্রতিবাদে তৃণমূলের তরফেও পথে নামার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

Comments
Loading...