বিজয় মালিয়াকে ভারতে প্রত্যার্পণের রায় দিল লন্ডনের ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট

ঋণখেলাপী বিজয় মালিয়াকে ভারতে প্রত্যার্পণের রায় ঘোষণা করল লন্ডন আদালত। ৬২ বছর এই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ভারতের ব্যাঙ্ক থেকে ৯ হাজার কোটি টাকা তছরুপের অভিযোগ রয়েছে। এরপর গত ২০১৬ সালে ২ রা মার্চ দেশ ছেড়ে লন্ডন চলে যান বিজয় মালিয়া।
সোমবার লন্ডনের আদালতের রায়ের দিকে তাকিয়ে ছিল ভারত। লিকার ব্যারন বিজয় মালিয়ার দেশে ফেরানো নিশ্চিত করতে দু’দিন আগেই ব্রিটেনে পাড়ি দিয়েছিলেন সিবিআই-এর যুগ্ম অধিকর্তা এস সাই মনোহরের নেতৃত্বাধীন সিবিআই এবং ইডির যৌথ দল। মনোহরের সঙ্গে লন্ডনে গিয়েছেন এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের দুই আধিকারিকও। অর্থ তছরুপ ও প্রায় ৯ হাজার কোটি টাকা ঋণখেলাপের মামলা ঝুলছে বিজয় মালিয়ার বিরুদ্ধে। ইডি বিজয় মালিয়াকে ‘ফেরার অর্থনৈতিক প্রতারক’ ঘোষণা করার আবেদন করেছিল সুপ্রিম কোর্টে। সেই আবেদনে স্থগিতাদেশ চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে পাল্টা আবেদন করেছিলেন বিজয় মালিয়া। গত ৭ তারিখ সুপ্রিম কোর্ট মালিয়ার আবদনের প্রেক্ষিতে ইডিকে নোটিশ পাঠিয়েছিল। লন্ডনে স্বেচ্ছা নির্বাসনে আছেন মালিয়া। তাঁর বিরুদ্ধে সিবিআই-এর লুক আউট নোটিশের ফাঁক গলে ২০১৬ সালের মার্চ মাসে দেশ ছাড়েন তিনি। সম্প্রতি কংগ্রেস অভিযোগ করেছে, কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী জেটলিকে জানিয়েই দেশ ছেড়েছেন মালিয়া।
সোমবার লন্ডনের নিম্ন আদালত বিজয় মালিয়াকে ভারতে প্রত্যর্পণের রায় দেয়। যদিও এই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বিজয় মালিয়ার কাছে উচ্চ আদালতে আবেদন করার রাস্তা খোলাই থাকছে। ফলে এই মুহূর্তেই মালিয়াকে ভারত আদৌ ফেরাতে পারবে কিনা তা নিয়ে যথেষ্টই সংশয় আছে। তবে একথা বলাই যায়, লন্ডনের নিম্ন আদালতের রায় মালিয়ার বিরুদ্ধে যাওয়ায় কিছুটা অস্বস্তিতে পড়লেন মালিয়া। সূত্রের খবর, নিম্ন আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে বিজয় মালিয়া ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্র সচিবের কাছে আবেদন করতে পারেন।

Comments
Loading...