খুনির ক্ষমা নেই, দোষীরা শাস্তি পাবেই, নিমতায় মৃত নেতার বাড়িতে বললেন মুখ্যমন্ত্রী, ফের বিজেপিকে তোপ

নিমতায় খুন হওয়া তৃণমূল নেতা নির্মল কুণ্ডুর বাড়িতে গেলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মৃত নেতার পরিবারকে সমবেদনা জানানোর পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা, খুনির ক্ষমা নেই, দোষীরা শাস্তি পাবেই।

এদিন নিমতায় মৃত নেতার বাড়িতে দাঁড়িয়ে মমতা বলেন, স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভোট হয়নি, তাই ভোটে ফল ঘোষণার পর লাগাতার সন্ত্রাস করছে বিজেপি। রাজ্যে তৃণমূল কর্মীরা আক্রান্ত হচ্ছেন, আর দিল্লির মিডিয়ার সামনে বিজেপি ফলাও করে জানাচ্ছে তাদের কর্মীরা বাংলায় আক্রান্ত! মমতার দাবি, এ রাজ্যে কোনও বিজেপি কর্মী খুন হননি, উল্টে টাকা ছড়িয়ে ভোটে জেতার পর তথ্য ফাঁস হয়ে যাওয়ার ভয়ে, বিজেপিই প্রতিদিন সন্ত্রাস করছে, বলে অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর। মমতা বলেন, বাংলা সন্ত্রাসের জায়গা নয়, তাড়াতাড়ি বিজেপিকে বুঝতে সেটা হবে। পাশাপাশি রাজ্যে আর কোনও বিজয় মিছিল করা যাবে না বলেও এদিন প্রশাসনকে নির্দেশ দেন মমতা। তৃণমূল নেত্রীর কথায়, ভোট মিটে গিয়েছে অনেকদিন, এবার কাজে ফিরুক বিজেপি।

মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথাগত রায়ের বিতর্কিত ট্যুইটেরও এদিন তীব্র সমালোচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, রাজ্যপালের পদে থেকে ক্রমাগত ‘পার্টিম্যানের’ মতো মন্তব্য করে চলেছেন তথাগত রায়। তাঁর এই ট্যুইট লজ্জাজনক বলে মন্তব্য করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
মঙ্গলবার সন্ধেয় এক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাওয়ার সময় নিমতার পাটনা-ঠাকুরতলায় দুষ্কৃতীদের ছোঁড়া গুলিতে নিহত হন তৃণমূল নেতা নির্মল কুণ্ডু। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এখনও পর্যন্ত দুই বিজেপি নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অন্যদিকে এর মধ্যে খুন হওয়া তৃণমূল নেতার ভাইকে হুমকি চিঠি পাঠানো হয়েছে বলে অভিযোগ।

তদন্তে নেমে একটি সিসিটিভি ফুটেজ পেয়েছে পুলিশ। যেখানে দেখা গিয়েছে, চলন্ত বাইক থেকে দুই যুবক তৃণমূল নেতাকে লক্ষ্য করে পরপর দু’রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে। তবে হেলমেট পরে থাকায় আততায়ীদের চেনা যায়নি। সন্দেহ করা হচ্ছে সুপারি কিলার দিয়ে খুন করানো হয়েছে ওই তৃণমূল নেতাকে।

Comments
Loading...