‘চ্যালেঞ্জ করবেন না, আন্দোলন চলবে, গ্রেফতার করলে করুন’ মমতার নিশানায় অমিত শাহ

চ্যালেঞ্জ করবেন না। কী করবেন? গ্রেফতার করবেন? সহ্যের সীমা আছে। যতদিন না নাগরিকত্ব আইন প্রত্যাহার করা হচ্ছে, আন্দোলন চলবে, কেন্দ্রকে হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির (Mamata Attacks Amit Shah)।
বুধবার হাওড়া থেকে ধর্মতলা পদযাত্রার পর ডোরিনা ক্রসিং থেকে মমতা প্রশ্ন তোলেন, আধার কার্ড দিয়ে কেন নাগরিকত্বের প্রমাণ দেওয়া যাবে না? যদি তা করা না যায় তাহলে কেন এত খরচ করে আধার সংযুক্তিকরণ করা হয়েছিল? নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের উদ্দেশে প্রশ্ন ছোঁড়েন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর কটাক্ষ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাজ আগুন জ্বালানো নয়, আগুন নেভানো। প্রসঙ্গত অমিত শাহ ঘোষণা করেছেন, নাগরিকত্ব প্রমাণে আধার কার্ড কার্যকর নয়। তাঁর এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে মমতার আক্রমণ, যদি আধার কার্ড দিয়ে নাগরিকত্ব প্রমাণ না করা যায় তবে কেন বিপুল খরচ করেছিল কেন্দ্র? কেন ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট, প্যান কার্ড, পাসপোর্টের সঙ্গে আধার সংযুক্তিকরণ হল?
মমতার দাবি, ১৯৯২ সালে বিজেপি জমানায় বাবরি মসজিদ ধ্বংসের পর আর কোনও অশান্তি হয়নি দেশে। ফের গত কয়েক বছরে মোদী সরকারের আমলেই উত্তরপূর্ব থেকে দিল্লি, পশ্চিমবঙ্গ থেকে কেরলে অশান্তির পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উদ্দেশে তৃণমূল নেত্রীর (Mamata Attacks Amit Shah) কটাক্ষ, তিনি শুধু বিজেপির সভাপতি নন দেশের গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীর পদে রয়েছেন। তাই নিজের দলকে সামলান, তাদের নিয়ন্ত্রণ করুন।
বুধবার হাওড়া ময়দান থেকে নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি বিরোধী মিছিলে নেতৃত্ব দেন মমতার। মিছিল শেষে ডোরিনা ক্রসিং থেকে মমতার দাবি, কেন্দ্র যতই বোঝানোর চেষ্টা করুক নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি আলাদা, আসলে দুটোই একই মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ। এদিনও গণতান্ত্রিক উপায়ে আন্দোলনের ডাক দিয়ে বলেন, গণতান্ত্রিক আন্দোলন বুলেট দিয়ে হয় না, পথে নেমে করতে হয়। আন্দোলনকারীদের হিংসার রাস্তায় যেতে নিষেধ করে তাঁর বার্তা, রাগ হলে গান লিখুন, ছবি আঁকুন কিন্তু বিজেপির ফাঁদে পা দিয়ে হিংসার পথে যাবেন না।
নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে রাজ্যের বেশ কিছু রেল স্টেশনে ভাঙচুর চালিয়েছে এক শ্রেণির আন্দোলনকারী। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, টাকা দিয়ে এসব করানো হয়েছে। রেল স্টেশন দেখতে কেন বিজেপি প্রতিনিধিদল বাংলায় আসছেন তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তৃণমূল নেত্রী। তাঁর কথায়, রেল স্টেশন দেখতে হলে দিল্লি যান, বাংলা নয়।
এই নিয়ে টানা তিন দিন নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসির বিরোধিতায় রাস্তায় হাঁটলেন মমতা। বৃহস্পতিবারও কেন্দ্রের নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি-র বিরোধিতায় রানি রাসমনি রোডে সমাবেশের ডাক দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এরপর শুক্রবার রয়েছে পার্ক সার্কাস ময়দানে সভা। যতদিন না নাগরিকত্ব আইন প্রত্যাহার করা হচ্ছে এই আন্দোলন চলবে, ঘোষণা মমতা ব্যানার্জির।

Comments
Loading...