রাজ্যের বিভিন্ন প্রকল্পের খতিয়ান তুলে ধরে তারকেশ্বর থেকে ফের কেন্দ্রকে আক্রমণ মুখ্যমন্ত্রীর

সিঙ্গুরের জমি ফিরিয়ে দিয়ে তাঁরা গর্বিত, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার হুগলির তারকেশ্বরে রানি রাসমণি গ্রিন ইউনিভার্সিটি ও মাটি উৎসবের সূচনার অনুষ্ঠান থেকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সিঙ্গুরের যে জমি ফেরানোর জন্য তিনি ১৪ দিন ধরনা দিয়েছিলেন, সেই জমি ফিরিয়ে দিতে পেরে তিনি খুশি। শুধু জমি ফিরিয়ে দেওয়াই নয়, ওই জায়গায় চাষবাসের জন্য জমি মালিকদের আর্থিক সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দেন মুখ্যমন্ত্রী।
শুক্রবার তারকেশ্বরে রাজ্যের প্রথম গ্রিন ইউনিভার্সিটির শিলান্যাস করেন মুখ্যমন্ত্রী। হুগলির সভা থেকে ফের কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ দেগে তিনি বলেন, কোনও ভিক্ষে চাই না। এদিন স্বাস্থ্যসাথীর স্মার্ট কার্ড দেখিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, রাজ্যের সাড়ে সাত কোটি মানুষ নিখরচায় সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার সুযোগ পাবেন। বিবাহিত মহিলার বাবা-মাও এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী।
দেশজুড়ে ১২ হাজার কৃষক মৃত্যুর ঘটনায় কেন্দ্রকে দুষে মমতা বলেন, এরাজ্যে কৃষকদের কোনও চিন্তা নেই। রাজ্যের কৃষকদের ৭০০ কোটি টাকা কৃষি ঋণ দেওয়ার ব্যবস্থা রাজ্য সরকার করেছে বলে ঘোষণা করেন মমতা। হুগলি জেলার কৃষকদের আলুর পাশাপাশি অন্য ফসলের চাষ করার উৎসাহ দেন তিনি।
কিছুদিন আগেই মমতার সবুজ সাথী ও উৎকর্ষ বাংলা রাষ্ট্র সঙ্ঘে সমাদৃত হয়েছে। সেই কথা তুলে ধরে মমতা বলেন, আবার প্রমাণ হল বাংলা পথ দেখায়।
জন্ম থেকে মৃত্যু, সংখ্যাগুরু থেকে সংখ্যালঘু, আর কোনও রাজ্যে এতগুলো জনকল্যাণকর প্রকল্প নেই বলেও দাবি মুখ্যমন্ত্রীর।

Comments
Loading...