মানুষের রক্ত নিয়ে রাজনীতি করা হচ্ছে, দার্জিলিঙে নেতাজির জন্মদিনে বিজেপিকে কটাক্ষ মমতার

এখন সংকীর্ণ রাজনৈতিক স্বার্থে মানুষের রক্ত নেওয়া হচ্ছে, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মদিবস উৎযাপনের অনুষ্ঠান থেকে বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির। বৃহস্পতিবার দার্জিলিঙে সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৩ তম জন্মদিবস উদযাপনের অনুষ্ঠানে মমতা বলেন, নেতাজি বলেছিলেন, ‘তোমরা আমাকে রক্ত দাও, আমি তোমাদের স্বাধীনতা দেব’। আর এখন মানুষের রক্ত নিয়ে রাজনীতি করা হচ্ছে। নিজেদের নাগরিকত্বের দাবি রক্ষা করতে গিয়ে প্রাণ হারাতে হচ্ছে মানুষকে। নেতাজির জন্মদিবসের অনুষ্ঠানেও নাগরিকত্ব আইন, এনআরসি, এনপিআর প্রসঙ্গে মুখ খোলেন তৃণমূল নেত্রী। তিনি বলেন, সুভাষচন্দ্র বসুও হিন্দু মহাসভার সমালোচনা করেছিলেন। বিজেপির সৃষ্ট ধর্ম হিন্দুধর্মকেই অপমান করছে। দেশে অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের তাড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। হিন্দু ধর্ম একজনকে নিয়ে নয়, সর্বধর্মসহিষ্ণুতার কথাই বলে। বিজেপির সৃষ্ট ধর্ম হিন্দুধর্ম নয় বলে মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী।
এদিন নাম না করে প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করে মমতা বলেন, সবাইকে নিয়ে যিনি চলতে জানেন, তিনিই নেতা, ভেদাভেদ করে কখনও নেতা হওয়া যায় না। তাঁর কটাক্ষ, ক্ষমতায় এসে বিজেপি নেতারা নেতাজির ফাইল নিয়ে এদিক- ওদিক ঘুরেছেন। কিন্তু এখনও জানাতে পারেননি সুভাষচন্দ্রের মৃত্যু রহস্য। নেতাজির জন্মদিবসে জাতীয় ছুটি ঘোষণা করা উচিত বলে দাবি করেন মুখ্যমন্ত্রী।
কেন্দ্রকে নিশানা করে মমতা বলেন, নাগরিকের অধিকার রক্ষায়, সব ধর্মের মানুষের একতার স্বার্থে তাঁর লড়াই চলবে। কোনওভাবেই সেখান থেকে পিছু হঠব না আমি। তাঁর অভিযোগ, বিজেপি সরকার ক্ষমতায় এসে প্ল্যানিং কমিশন তুলে দিয়ে রাজ্যগুলির কথা বলার অধিকার খর্ব করে দিয়েছে। সংকীর্ণ রাজনৈতিক স্বার্থে ধর্মীয় ভেদাভেদের চেষ্টা করছে। কিন্তু আমরা নেতাজি ও গান্ধীর পথেই চলব বলে মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী।
Comments
Loading...