নবান্ন থেকে উত্তর ও দক্ষিণ বঙ্গের ৬৯ টি পুজোর ভার্চুয়াল উদ্বোধন মুখ্য মন্ত্রীর, করোনা কালে সাবধানে থাকার বার্তা

করোনা কালে ইচ্ছাপূরণ। রাজ্যের বিভিন্ন জেলার পুজো উদ্যোক্তাদের ফি বছরের আপশোস এবার মিটল। নবান্ন সভা ঘর থেকে ভার্চুয়ালি উত্তর ও দক্ষিণ বঙ্গের মোট ৬৯ টি পুজোর উদ্বোধন করলেন মুখ্য মন্ত্রী। এর আগে কলকাতার কয়েকটি পুজো মণ্ডপই কেবলমাত্র উদ্বোধন করতেন মমতা। সময়ের সমস্যার কারণে যেতে পারতেন না উত্তরবঙ্গ কিংবা জেলার কোনও পুজো উদ্বোধনে। নিউ নর্মাল সেই সমস্যা মিটিয়ে দিল। এই প্রথমবার উত্তরবঙ্গ থেকে দক্ষিণবঙ্গ, জেলার পুজোর উদ্বোধন করলেন মুখ্য মন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

এক ঝলকে বোঝা মুশকিল নবান্ন সভাঘরের এমন ভোলবদল। যেখানে হলঘর প্রশাসনিক বৈঠকে গমগম করাটাই রীতি সেখানে বুধবারের নবান্ন দেখল অন্য দৃশ্য। নবান্ন সভাঘরকে আস্ত একটি মণ্ডপের আদলে সাজিয়েছিল সরকার। সেখানে মঞ্চে দাঁড়িয়েই জলপাইগুড়ির কদমতলা দুর্গাবাড়ির পুজোর যেমন উদ্বোধন করলেন মমতা ব্যানার্জি, তেমনই কালিম্পংয়ের ঠাকুর বাড়ির পুজো উদ্বোধন করতে গিয়ে নস্টালজিক মুখ্য মন্ত্রী। নদিয়ার তাহেরপুর থেকে মুর্শিদাবাদের ভগবানগোলা, কোচবিহার শহর থেকে শিলিগুড়ির বাঘাযতীন কিংবা মালদার ইংলিশবাজার সর্বজনীন, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং, কালিম্পং, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর, মালদা, মুর্শিদাবাদ ও নদিয়া জেলার মোট ৬৯ টি পুজোর ভার্চুয়াল উদ্বোধন করেন তিনি। সবাইকে শারদীয়ার শুভেচ্ছা জানান।

জেলার পুজোর উদ্বোধনের পাশাপাশি মুখ্য মন্ত্রী উদ্যোক্তাদের করোনা নিয়েও সতর্ক থাকতে বলেন। বলেন বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক ও স্যানিটাইজারের ব্যবহারের কথা। পাশাপাশি পুলিশ প্রশাসনকে মমতা বলেন, যে সমস্ত পুজো রাজ্য সরকারের পুজো অনুদান পাচ্ছে না তাদের অন্যভাবে সহায়তা করতে হবে।

Comments
Loading...