সবার ফোনের কথোপকথন রেকর্ড করা হচ্ছে, ব্যক্তি স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করছে কেন্দ্র, অভিযোগ মমতার

ফোন এবং কম্পিউটারে নজরদারির মাধ্যমে মানুষের ব্যক্তি স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ হচ্ছে বলে ফের কেন্দ্রকে আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী। সোমবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে রাজ্যের কৃতী খেলোয়াড়দের সম্মান জ্ঞাপন অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, মানুষের ব্যক্তিগত জীবনে নজরদারি চালানো হচ্ছে। স্বামী-স্ত্রী থেকে দুই বন্ধুর কথোপকথন সব রেকর্ড করা নেওয়া হচ্ছে। সাংবাদিক থেকে বিচারক সবার কথোপকথন রেকর্ড করে নেওয়া হচ্ছে মোবাইল ফোনে। গোপনীয়তা বলে কিছু নেই। স্টিং অপারেশন চালানো হচ্ছে কম্পিউটার, মোবাইল ফোনে, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টসহ সব জায়গায় চালানো হচ্ছে নজরদারি। মানুষের সাধারণ অধিকার থেকে সম্পত্তি কোনও কিছুই আর নিরাপদ নয় বলে দাবি করেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর কথায়, গণতন্ত্র থেকে সম্পত্তির অধিকার সব জায়গায় হস্তক্ষেপ করছে কেন্দ্র।
প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই কেন্দ্র নির্দেশিকা জারি করেছিল, প্রয়োজনে যে কারোরই কম্পিউটার বা মোবাইল ফোনের যাবতীয় তথ্যের ওপর নজরদারি চালানো যাবে। তদন্তের স্বার্থে মোট ১০ টি কেন্দ্রীয় সংস্থাকে এবিষয়ে অধিকার দেওয়া হয়। ওই নির্দেশিকায় এও বলা হয়, কেউ যদি সেই তথ্য দিতে অস্বীকার করেন বা তদন্তকারীদের কাজ ব্যাহত করেন, সেক্ষেত্রে বাজেয়াপ্ত করা যাবে ওই ব্যক্তির কম্পিউটার বা মোবাইল ফোন। এমনকী প্রয়োজনে তাঁকে গ্রেফতারও করা যাবে। যদিও কেন্দ্রের এই নির্দেশিকার বিরুদ্ধে মামলাও হয় সুপ্রিম কোর্টে।

Comments
Loading...