মোদীকে নিয়ে আপত্তিজনক মন্তব্য করে গ্রেফতার হওয়া মণিপুরের সাংবাদিক আবেদন করলেন হাইকোর্টে

ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাক্টের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে মণিপুর হাইকোর্টে আবেদন করলেন মোদী সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্য করে গ্রেফতার হওয়া সাংবাদিক কিশোরচন্দ্র ওয়াংখেম। তাঁর আইনজীবী সি এইচ ভিক্টর এই গ্রেফতারির নির্দেশ রদ করার জন্য আবেদন জানান আদালতে। পিটিশনে তিনি জানান, ঠিক কোন অভিযোগের ভিত্তিতে সাংবাদিক কিশোরচন্দ্রের বিরুদ্ধে গ্রেফতারির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তা অস্পষ্ট। সম্প্রতি কিশোরচন্দ্র ওয়াংখেম নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে একটি ভিডিও আপলোড করেন, যেখানে মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন সিংহ ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সম্পর্কে আপত্তিজনক মন্তব্য করেন তিনি।
ওই ভিডিওতে সাংবাদিক কিশোরচন্দ্র ওয়াংখেম মুখ্যমন্ত্রীকে ‘পাপেট’ বা পুতুল বলে তাঁর সরকার চালানোর ধরন নিয়ে সমালোচনা করেছিলেন। মণিপুরে আরএসএস ঝাঁসির রানি লক্ষ্মীবাঈয়ের জন্ম দিবস পালনের এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল। সেই অনুষ্ঠানেরও সমালোচনা করেছিলেন সাংবাদিক। তাঁর মত ছিল, রাজপুত রানির সঙ্গে মণিপুরের কোনও সম্পর্ক নেই। তাঁকে নিয়ে স্রেফ রাজনীতি করার জন্য আরএসএস এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল। ওই ভিডিওতে তিনি নাকি সাহস থাকলে তাঁকে গ্রেফতার করা হোক বলেও চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিলেন।
এরপর, চলতি বছরের ২০ শে নভেম্বর ৩৯ বছর বয়সী ওই সাংবাদিককে গ্রেফতার করে পুলিশ। ২৬ শে নভেম্বর মুখ্য জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ওই ভিডিওকে রাষ্ট্রদ্রোহিতামূলক না হলেও, কিশোরচন্দ্র যে শব্দ ব্যবহার করেন তার নিন্দা করেন। এর পরের দিন ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট অনুসারে সাংবাদিককে তাঁর বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এর প্রায় একমাস পর, বুধবার ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট অনুযায়ী ১২ মাসের জন্য কিশোরচন্দ্র ওয়াংখেমকে জেল হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়।

Comments
Loading...