ঋণখেলাপী শিল্পপতি মেহুল চোক্সির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করল ইন্টারপোল

১৩ হাজার কোটি টাকা ঋণখেলাপীর দায়ে অভিযুক্ত হন শিল্পপতি মেহুল চোক্সির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করল ইন্টারপোল। ব্যাঙ্কের ঋণ না মেটানোর অভিযোগ ওঠার পরই হিরে ব্যবসায়ী মেহুল এবং তাঁর আত্মীয় নীরব মোদী দেশ ছেড়েছিলেন । সূত্রের খবর, সিবিআই-এর অনুরোধে মেহুল চোক্সির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে ইন্টারপোল।
বর্তমানে অ্যান্টিগুয়াতে বসবাসকারী, গীতাঞ্জলী গ্রুপের কর্ণধার মেহুল চোক্সির বিরুদ্ধে পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক ঋণখেলাপির অভিযোগ আনে। ২০১৮ সালে চোক্সি ও তাঁর আত্মীয় নীরব মোদীর বিরুদ্ধে ব্যাঙ্কের তরফে অভিযোগের ভিত্তিতে, তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়।
কিছুদিন আগেই নিজের আইনজীবীকে দিয়ে ইডিকে বার্তা পাঠিয়েছিলেন নীরব মোদী। মোদী জানিয়েছিলেন, তিনি দেশে ফিরতে চান কিন্তু নিরাপত্তার অভাব বোধ করায় তিনি দেশে ফিরতে ভয় পাচ্ছেন। তাঁকে দেশের কাছে ব্যাঙ্ক জালিয়াতির পোস্টার বয় বানানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেছিলেন তিনি। এমনকী নিজের ভাবমূর্তি ‘রাবণের মতো’ হয়ে গিয়েছে বলে ইডির কাছে স্বীকারোক্তি নীরবের।
অন্যদিকে, মেহুল চোক্সি নিজেকে প্রথম থেকে ‘নিরাপরাধ’ বলে দাবি করে এসেছেন। তিনি রাজনীতির শিকার বলেও অভিযোগ করেছেন।
মেহুল ও নীরবের জালিয়াতি নিয়ে বিজেপি সরকারকে বারবার আক্রমণ করেছে বিরোধীরা। কংগ্রেসের অভিযোগ, এই দুই শিল্পপতিকে পালাতে সাহায্য করেছে বিজেপি সরকার। এমনকী মোদী ও চোক্সি মিলে যে ২৬ হাজার কোটি টাকার তছরুপ করেছেন তাতে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির বিরুদ্ধেই দুর্নীতির অভিযোগ এনেছেন রাহুল।

Comments
Loading...