হাতে ২০ দিন, টার্গেট আরও ৫ লক্ষ! সংখ্যালঘু স্কলারশিপে ইতিহাস গড়ার পথে বাংলা

দেশে সংখ্যালঘু পড়ুয়াদের আর্থিক সহায়তার জন্য রয়েছে ন্যাশনাল স্কলারশিপ প্রোগ্রাম। কেন্দ্রের মোট ৮ টি দফতর মিলে এই বৃত্তি প্রদান করে। এবার সেই সংখ্যাকেও ছাপিয়ে যাওয়ার পথে বাংলা। এ বছর ৫০ লক্ষ সংখ্যালঘু পড়ুয়াকে স্কলারশিপ দিচ্ছে রাজ্য। যা দেশে সর্বকালীন রেকর্ড। 

গতবছর মোট ৪২ লক্ষ সংখ্যালঘু পড়ুয়াকে বৃত্তি দিতে রাজ্য সরকারের খরচ হয়েছিল ৭০০ কোটি টাকা। এবার টার্গেট ৫০ লক্ষ সংখ্যালঘু পড়ুয়া। এজন্য অতিরিক্ত ৩০ কোটি টাকা বরাদ্দ। অগাস্ট মাস থেকে আবেদন গ্রহণ শুরু হয়। শেষ হবে ১৫ ডিসেম্বর। দফতরের কর্তারা বলছেন, হাতে রয়েছে ২০ দিনের মতো সময়। ৪৫ লক্ষ আবেদন জমা পড়ে গেছে। এখনও ৫ লক্ষ্য পড়ুয়া আবেদন করতে পারবে৪৫ লক্ষ আবেদন জমা পড়ে গেছে। এখনও ৫ লক্ষ্য পড়ুয়া আবেদন করতে পারবে। আবেদনের ক্ষেত্রে যে উৎসাহ দেখতে পাচ্ছি, ২০ দিনে অনায়াসে ৫ লক্ষ্যের টার্গেট পূরণ হয়ে যাবে।

একবারে এত সংখ্যক পড়ুয়াকে আর্থিক বৃত্তি প্রদানের ঘটনার নজির দেশের ইতিহাসে মিলবে কিনা সন্দেহ। জানা গিয়েছে, মোট পাঁচ ধরনের স্কলারশিপ দেওয়া হয় রাজ্যের তরফে। যেমন, প্রি-ম্যাট্রিক, পোস্ট-ম্যাট্রিক, মেরিট কাম মিনস, স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট কাম মিনস এবং ট্যালেন্ট সাপোর্ট স্টাইপেন্ড। প্রতিটি বৃত্তি প্রকল্পে বাৎসরিক ১১০০ টাকা থেকে ৬০ হাজার টাকা পর্যন্ত আর্থিক সহায়তা পাওয়া যায়। দশম শ্রেণি থেকে এমফিল কিংবা একাধিক উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে বৃত্তি পেতে পড়ুয়ারা আবেদন করেন। বিবেচিত হলে টাকা সরাসরি চলে যায় ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে।

Comments
Loading...