অ্যাপের পর আলিবাবা? চিনা সেনা-যোগের জেরে আরও ৭ চিনা সংস্থাকে নিষিদ্ধ ঘোষণার পথে ভারত

ভারত-চিন বিবাদের জেরে চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে ভারত। ভারতের তথ্য হাতিয়ে চিন তা কাজে লাগাতে পারে বলে অনুমান করে এই পদক্ষেপ। এবার সাতটি চিনা সংস্থাও ভারতে নিষিদ্ধ হতে পারে। তবে এরা সবাই মোবাইল বা অ্যাপ্লিকেশন সংস্থা নয়।

Huawei, আলিবাবার মতো ভারতে ব্যবসা চালানো বিখ্যাত চিনা সংস্থা যাদের চিনের সেনার সঙ্গে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ যোগ রয়েছে, তাদের উপর নিষেধাজ্ঞা আনতে পারে ভারত। সূত্রের খবর, চিনের সেনাবাহিনী পিপলস লিবারেশন আর্মি বা পিএলএর সঙ্গে এই সাত চিনা সংস্থার লেনদেনের সম্পর্ক রয়েছে বলে সন্দেহ করছেন ভারতীয় গোয়েন্দারা। এই সাতটি চিনা সংস্থা হ’ল জিন্দিয়া স্টিলস (Xindia Steels), জিনক্সিং ক্যাথে ইন্টারন্যাশনাল (Xinxing Cathay International), চিন ইলেকট্রনিক্স টেকনোলজি গ্রুপ (China Electronics Technology Group), হুয়াওয়ে (Huawei), আলিবাবা (Alibaba), টেনসেন্ট (Tencent) এবং এসএইসি মোটর কর্পোরেশন (SAIC Motor Corp)।

কেন্দ্রীয় সরকার সূত্রে খবর, সরকারের পর্যবেক্ষণে থাকা এই সংস্থাগুলির বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা হতে পারে। ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরে চিনা টেলিকম সংস্থা Huawei ভারত থেকে আয় করেছে ১২ হাজার ৮০০ কোটি টাকা। কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা রেন ঝেংফেই ছিলেন পিপলস লিবারেশন আর্মির ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টর। বর্তমানে তাদের ৫ জি পরিষেবা সংক্রান্ত ব্যাপারে আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, জাপান, ব্রিটেনের প্রভৃতি দেশের সঙ্গে কিছু ব্যবসায়িক গোলমাল চলছে। গোয়েন্দা সূত্রে দাবি, আলিবাবা, বাইডু (Baidu) এবং টেনসেন্ট (Tencent) সংস্থাগুলি চিনের আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স প্রোজেক্টের একটি অংশ।

আমেরিকা-চিন অর্থনৈতিক ও সুরক্ষা পর্যালোচনা কমিশন, ২০১৯ এর রিপোর্টের দিকে ইঙ্গিত করে বলা হচ্ছে, চিনের সামরিক-নাগরিক ফিউশন পলিসির মধ্যে রয়েছে “সরকার-সমর্থিত পদ্ধতি”। এদিকে পেটিএম, জোমাটো, বিগ বাস্কেট, স্ন্যাপডিল, এক্সপ্রেসিজের মতো জনপ্রিয় ভারতীয় স্টার্টআপগুলিতে বিনিয়োগ করেছে জ্যাক মা-র সংস্থা আলিবাবা। চিনা সংস্থা Tencent-ও এদেশে বিপুল বিনিয়োগ করেছে। ওলা ক্যাবসে ৪০০ মিলিয়ন ডলার এবং ফ্লিপকার্টে ৭০০ মিলিয়ন ডলার-সহ ভারতীয় প্রযুক্তি ক্ষেত্রে বিশাল বিনিয়োগ রয়েছে তাদের।

আবার প্রযুক্তি সংক্রান্ত সংস্থা নয় এমন কোম্পানিও ভারতীয় গোয়েন্দাদের নজরে এসেছে। যেমন সাংহাইয়ের অটোমোবাইল কোম্পানি এসএআইসি মোটর কর্পোরেশন ভারতে এসইউভি, এমজি হেক্টরের মতো গাড়ি বিক্রি করে। তাদের অধীনস্থ একটি গাড়ি নির্মাণ সংস্থা নানজিং অটোমোবাইলের সঙ্গে পুরনো সম্পর্ক চিনের সেনার। তারা ছিল পিএলএ-এর গাড়ি সার্ভিসিং-এর একটি ইউনিট। এই রকম সাত চিনা সংস্থা কোনও না কোনওভাবে চিনা সেনার সঙ্গে যুক্ত। এই প্রেক্ষিতে চিনা অ্যাপ নিষেধাজ্ঞার মতো সাত চিনা সংস্থার বিরুদ্ধেও পদক্ষেপ করতে পারে ভারত সরকার। এমনটাই জানা গিয়েছে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম সূত্রে।

Comments
Loading...