রাফাল নথি চুরিঃ খবরের সূত্রের নাম প্রকাশ্যে আনা হবে না, বললেন হিন্দু পত্রিকা গোষ্ঠীর চেয়ারম্যান এন রাম

বুধবারই কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে দেশের অ্যাটর্নি জেনারেল কে কে ভেনুগোপাল সুপ্রিম কোর্টে জানিয়েছেন, প্রতিরক্ষা মন্ত্রক থেকে চুরি গেছে রাফাল চুক্তি সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ নথি। তাই সেই নথির ভিত্তিতে হওয়া আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালতে কোনও শুনানি হওয়া উচিত নয়। সরকারের যুক্তি, দেশের নিরাপত্তা সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ এই সব নথি প্রকাশ্যে আনা দেশের পক্ষে বিপজ্জনক। এই নথি যারা লোপাট করেছে তারা সরকারি নিয়ম ও আইন ভেঙেছে বলেও সুপ্রিম কোর্টে জানিয়েছে কেন্দ্র। বলা হয়েছে, এর সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারেন মন্ত্রকের প্রাক্তন ও বর্তমান কিছু আধিকারিক।
আদালতে সরকারের এই দাবির প্রেক্ষিতে এবার মুখ খুললেন বিশিষ্ট সংবাদিক তথা দ্য হিন্দু প্রকাশনা গোষ্ঠীর চেয়ারম্যান এন রাম। রাফাল সংক্রান্ত বেশ কিছু গোপন তথ্য সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে ইংরাজি দৈনিক দ্য হিন্দু পত্রিকাতে। তার প্রেক্ষিতে এন রাম জানালেন, তাঁরা প্রতিরক্ষা মন্ত্রক থেকে রাফাল নথি চুরি করেননি। তাঁরা গোপন এবং বিশ্বস্ত সূত্রে এই সব তথ্য পেয়েছেন। এবং কোনও চাপের কাছেই নতি স্বীকার করে সেই সব সূত্রের নাম প্রকাশ্যে আনা হবে না। কারণ তাঁদের কথা দেওয়া হয়েছে প্রকাশনার তরফে। এন রামের কথায়, সূত্রদের নিরাপত্তা ও গোপনীয়তা বিঘ্নিত হবে, এমন কোনও কাজ করা হবে না।
পাশাপাশি, গোটা বিষয়টিকে তদন্তমূলক সাংবাদিকতার অংশ হিসাবে উল্লেখ করে এন রাম বলেছেন, ভারতীয় সংবিধানের ১৯ (১) এ ধারা অনুযায়ী বাক ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতা সংবিধানিক অধিকারের মধ্যে পড়ে। আরটিআই এবং অফিশিয়াল সিক্রেট অ্যাক্টের নির্দিষ্ট ধারা উল্লেখ করে এন রাম বলেছেন, তাঁরা কোনও বেআইনি বা অনৈতিক কাজ করেননি।
সরকারের এই ধরনের মন্তব্য তদন্তমূলক সাংবাদিকতার পরিপন্থী বলেও দাবি করেছেন এন রাম। পাশাপাশি কেন্দ্র সরকারকে কটাক্ষ করে বলেছেন, যাঁরাই রাফাল নিয়ে লেখালেখি করছেন তাঁদের মুখ বন্ধ করতে চাইছে সরকার। ভয়ের পরিবেশ তৈরির চেষ্টা চলছে সংবাদজগতে। এন রাম আশা প্রকাশ করেছেন এই ভয়ের পরিবেশ কাটিয়ে নিজের কাজ চালিয়ে যাবে গণমাধ্যমগুলি।

Comments
Loading...