দুই হেভিওয়েটের সঙ্গে তালমিলিয়ে প্রচার সারলেন মীনাক্ষী 

একুশের নির্বাচনের সবথেকে হাইভোল্টেজ কেন্দ্র নন্দীগ্রাম।  প্রচারে ঝড় তুলেছে যুযুধান দুই পক্ষ তৃণমূল এবং বিজেপি।  পিছিয়ে নেই সংযুক্তমোর্চা সমর্থিত সিপিএম প্রার্থী মীনাক্ষী মুখার্জিও। একনজরে দেখে নেওয়া যাক, মীনাক্ষীর আজকের সারাদিনের কর্মসূচি।

দিনের শুরুতে মীনাক্ষী নন্দীগ্রামের ভাটুরিয়ার মুসলিম পাড়ায় জনসংযোগ করেন।  

মুসলিম পাড়ায় জনসংযোগ শেষে রিয়াপাড়া যান তিনি। দুজায়গাতেই কোনও বক্তব্য রাখেননি সিপিএম প্রার্থী। স্থানীয় মানুষের সঙ্গে আলাপচারিতার মধ্য দিয়ে ভোট প্রচার করেন। 

জনসংযোগ শেষে নন্দীগ্রামের সুকুমার সেনগুপ্ত ভবন থেকে সাংবাদিক সম্মলেন করেন সিপিএম প্রার্থী।  উপস্থিত ছিলেন, সিপিএম নেতা রবিন দেব। স্বভাবসিধ ঢঙেই তৃণমূল বিজেপিকে একযোগে তীব্র আক্রমণ শানান তিনি। অবাধ এবং শান্তিপূর্ণ ভোট করানোর দাবি জানান সাংবাদিক বৈঠক থেকে।  

এরপরে নন্দীগ্রাম ২ নম্বর ব্লকের শিবরামপুর নতুন বাজার অঞ্চলে পথসভা করেন সিপিএমের তরুণ প্রার্থী।  ওই পথসভা থেকে বিরোধীদের আক্রমণের পাশাপাশি সিপিএম প্রার্থী তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে অভিযোগ করেন, জমি আন্দোলনের সময় থেকে বহু ঘরছাড়া সিপিএম কর্মী সমর্থক এখনও ঘরে ফিরতে পারেননি। এদিন নান্দিগ্রামকে দৃষ্টান্ত রেখে, লড়াকু নেত্রী বলে পরিচিত মীনাক্ষী মুখার্জি ঘোষণা করেন, মমতা ব্যানার্জি, শুভেন্দু অধিকারীর মত হেভিওয়েট প্রার্থী থাকা সত্ত্বেও যদি সিপিএম কর্মীরা লড়াই করতে পারেন, তবে সারা পশ্চিমবঙ্গে সংযুক্তমোর্চার সরকার তৈরি শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা।  

         

Comments
Loading...