চিনে ফের ছড়াচ্ছে করোনা! বেজিংয়ে সংক্রমিত বহু, নতুন করে লকডাউন অনেক জায়গায়

ফের চিনে তীব্র হচ্ছে করোনা আতঙ্ক। রাজধানী বেজিংয়ে নতুন করে ২৭ জন করোনা রোগীর সন্ধান মেলার প্রেক্ষিতে সে দেশের এক স্বাস্থ্য কর্তার সতর্কবাণী, বেজিংয়ের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ‘অত্যন্ত মারাত্মক’।
চিনের এক সি-ফুড বাজার থেকে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছিল বলে দাবি করে চিন। প্রথম পর্যায়ের বিপুল প্রাণহানির পর করোনা পরিস্থিতি অনেক আয়ত্তে এলেও ফের নতুন করে করোনা সংক্রমণে আতঙ্ক বাড়ছে বেজিংয়ে। দীর্ঘ লকডাউন আর ব্যাপক টেস্টিংয়ের মাধ্যমে করোনা সংক্রমণ রুখতে অনেকটাই সফল হয়েছিল চিন। সেখান থেকে আবার সংক্রমণের খবরে কপালে চিন্তার ভাঁজ স্বাস্থ্য দফতরের অফিসারদের।
জানা গিয়েছে, গত পাঁচ দিনে ১০৬ জন করোনা সংক্রমিতের সন্ধান মিলেছে। বেজিংয়ে কয়েক হাজার মানুষের করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা করছে প্রশাসন।
এদিকে স্যামন মাছ থেকে করোনার সংক্রমণ ছড়াচ্ছে বলেও দ্বিতীয়বার ভাইরাসের হানায় নয়া জল্পনা শুরু হয়েছে চিনে। অভিযোগ উঠেছে কাঁচা মাছ-মাংসের বাজারের দিকেই। যদিও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানাচ্ছে বেজিংয়ে নতুন সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার কারণ এখনও অজানা। স্যামন মাছের আমদানি বা প্যাকেজিং থেকেই ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়াচ্ছে এটা প্রাথমিক কারণ হতে পারে না বলে মত তাদের। রবিবার ৫৭ এবং সোমবার ৪৯ জনের শরীরে করোনা পজিটিভ ধরা পড়ার পর নড়েচড়ে বসে চিন প্রশাসন। বেজিংয়ের ১০ জায়গায় লকডাউন ঘোষণা করা হয়। চিনের এক সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর ছড়ায়, বেজিংয়ের জিনফাদি বাজার থেকে এই সংক্রমণ ছড়িয়েছে। স্যামন মাছ যেখানে কাটা হয় তার চপিং বোর্ডে ভাইরাস পাওয়া গেছে। সংক্রমিতদের অনেকে ওই জিনফাদি বাজারেই গিয়েছিলেন বলেও দাবি করা হয়। তারপরেই বেজিংয়ের অন্যতম এই সুপার মার্কেট বন্ধ করে দেয় প্রশাসন। স্যামন মাছের কেনাবেচাতেও জারি হয়েছে নিষেধাজ্ঞা।

 

Comments
Loading...