আত্মপ্রকাশ করল নয়া ডুয়েল সিম আইফোন এক্সএস ও এক্সএস ম্যাক্স, ভারতে বিক্রি শুরু ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে

সরাসরি ঘোষণা না করা হলেও যেদিন থেকে জানা গিয়েছিল অ্যাপেল ১২ সেপ্টেম্বর এক বিশেষ ইভেন্ট আয়োজন করতে চলেছে, তবে থেকেই জল্পনা শুরু হয়েছিল সম্ভবত বুধবারই প্রকাশ্য আসতে চলেছে নয়া আইফোন। জল্পনাই সত্যি হল, ক্যালিফোর্নিয়ায় অ্যাপেল পার্কের স্টিভ জোবস থিয়েটারে সংস্থার সিইও টিম কুকের হাত ধরেই বুধবার ভারতীয় সময় রাত সাড়ে দশটা নাগাদ আত্মপ্রকাশ করল নয়া দুই আইফোন। আইফোন এক্সএস ও এক্সএস ম্যাক্স। দুটি ফোনই আইফোন এক্স’এর আধুনিক রূপ। ডিসপ্লে স্ক্রিনের সাইজের ফারাক ছাড়া বাকি সব ফিচারই এক থাকছে এই দুটি ফোনে।
আইফোন এক্সএস এর ডিসপ্লে ৫.৮ ইঞ্চি ও আইফোন এক্সএস ম্যাক্স এর ডিসপ্লে ৬.৫ ইঞ্চি। এই দুটি ফোনেরই তিনটি ভার্সান পাওয়া যাবে মেমরি ক্যাপাসিটির উপর নির্ভর করে। ৬৪ জিবির আইফোন এক্সএস এর দাম পড়বে ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৭২ হাজার টাকা। ২৫৬ ও ৫১২ জিবি মেমরি সম্পন্ন আইফোন এক্সএস এর দাম পড়বে যথাক্রমে ৮২,৬০০ ও ৯৭ হাজার টাকা। ৬৪ জিবি, ২৫৬ জিবি ও ৫১২ জিবি’র আইফোন এক্সএস ম্যাক্স এর দাম এক্সথাক্রমে পড়বে ১০৯৯ মার্কিন ডলার, ১২৪৯ মার্কিন ডলার ও ১৪৪৯ মার্কিন ডলার। ধূসর ও সিলভার কালারের পাশাপাশি সোনালি রঙেও পাওয়া যাবে এই নতুন ফোন দু’টি। ফোন দু’টির প্রি বুকিং শুরু হচ্ছে ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে। মার্কিন মুলুকে তা আত্মপ্রকাশ করবে ২১ সেপ্টেম্বর। ভারতে ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে পাওয়া যাবে আইফোন এক্সএস ও এক্সএস ম্যাক্স।
এই প্রথম আইফোনের দুনিয়ায় প্রবেশ করল ডুয়েল সিম সাপোর্ট। নতুন এই ফোন দুটিতে থাকছে একটি ফিজিক্যাল সিম ও একটি ই-সিম ব্যবহারের সুবিধা। তবে চীনের বাজারের জন্য দুটি সিমই ফিজিকাল থাকবে এই ফোন দুটিতে। নতুন এই ফোন দু’টিই এখনও পর্যন্ত লঞ্চ হওয়া সর্বাধুনিক আইফোন বলে অ্যাপেলের তরফে জানানো হয়েছে। দু’টি ফোনের ডিসপ্লের উপরই থাকছে একটি করে কালো নচ। দুটি ফোনের মডেলেই থাকছে সুপার রেটিনা ও এলইডি ডিসপ্লে। ফোনগুলি চলবে আইওএস ১২ অপারেটিং সিস্টেমে। এছাড়াও ফোন দু’টিতে থাকছে ৬ কোর এ১২ বায়োনিক চিপ, যা আগের ফোনগুলির থেকে ১৫ শতাংশ দ্রুত কাজ করতে সক্ষম। আইফোন এক্সএসে আগের থেকে ৩০ মিনিট ও এক্সএস ম্যাক্সে আগের থেকে ৯০ মিনিট বেশি ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে। ফোন দুটিতে থাকছে ডুয়াল রিয়াল ক্যামেরাও। একটি ক্যামেরায় বসানো থাকবে ১২ এমপি সেন্সর। থাকছে ফেস রেকগনাইজিং সেন্সর, ফেস আইডি’র মতো অত্যাধুনিক প্রযুক্তি। সবকটি ফোনের র‍্যাম ৪ জিবি। এছাড়াও আনা হয়েছে অপেক্ষাকৃত কম দামের আইফোন এক্সআরআই।
নয়া ফোনের পাশাপাশি চতুর্থ জেনারেশনের সিরিজ ৪ এর নয়া অ্যাপেল ওয়াচও বুধবার লঞ্চ করেছে কর্তৃপক্ষ। এই ঘড়ির মাধ্যমে বাড়িতে বসেই করা যাবে ইসিজি। ভারতীয় মুদ্রায় যার দাম প্রায় ২৮ হাজার ৭০০ টাকা। ঘড়ির সেলুলার ভার্শনের দাম পড়বে প্রায় ৩৬ হাজার টাকা। ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে এই ওয়াচের প্রি-বুকিং শুরু হচ্ছে, ডেলিভারি শুরু হবে ১৭ তারিখ থেকে। পাশাপাশি দাম কমেছে অ্যাপেল ওয়াচ ৩ সিরিজেরও। ঘড়িতে থাকছে ব্লু টুথ ও এই ঘড়ি পরে সাঁতারও কাটা যাবে। পাশাপাশি নতুন অপারেটিং সিস্টেম বাজারে আনার ঘোষণাও এদিন অ্যাপেলের তরফে করা হয়েছে।

Comments
Loading...