নির্মল গ্রাম প্রকল্পে এগিয়ে পশ্চিমবঙ্গ, স্বীকৃতি দিল কেন্দ্রীয় সরকার

রাজ্যের মুকুটে নয়া পালক। নির্মল গ্রাম তৈরি প্রকল্পেও এগিয়ে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। নির্মল বাংলা প্রকল্পে ১ কোটি ৩৫ লক্ষ পরিবারে শৌচাগার তৈরি করার সুযোগ করে দিয়েছে রাজ্য সরকার। রাজ্যের বেশ কয়েকটি জেলা নির্মল গ্রাম প্রকল্পে প্রথম স্থান অধিকার করেছে। এখন পশ্চিমবঙ্গের প্রত্যেক গ্রামবাসীর জন্য শৌচালয়ের ব্যবস্থা করা গিয়েছে। রাজ্যের এই কৃতিত্বে স্বীকৃতি দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।
শুক্রবার সোশ্যাল মিডিয়ায় এ নিয়ে একটি পোস্ট করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফেসবুক ও ট্যুইটারে মমতা লেখেন, ‘খুশির সঙ্গে জানাচ্ছি, গ্রামীণ বাংলায় এখন আর কাউকে প্রকাশ্যে মলত্যাগ করতে যেতে হয় না। সরকারের লক্ষ্য ছিল, মানুষের সুস্থভাবে বসবাসের জন্য সবুজ ও পরিচ্ছন্ন পরিবেশ তৈরি করা। সেই লক্ষ্যে নির্মল বাংলা প্রকল্পে ১ কোটি ৩৫ লক্ষ পরিবারে শৌচাগার তৈরি করে দিয়েছে তাঁর সরকার। কেন্দ্রও বাংলার এই কৃতিত্বে স্বীকৃতি দিয়েছে’, সোশ্যাল মিডিয়ায় করা ওই পোস্টে জানান মমতা। সেই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী এও জানান, রাজ্যের পরবর্তী লক্ষ্য হল সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্টে সাফল্য লাভ করা।
প্রসঙ্গত, কেন্দ্রের ১০০ দিনের কাজ প্রকল্পে প্রথম স্থান অধিকার করেছে পশ্চিমবঙ্গ। তাছাড়া রাজ্য সরকারের তৈরি সবুজ সাথী, কন্যাশ্রী, উৎকর্ষ বাংলা ইত্যাদি প্রকল্প আন্তর্জাতিক স্তরে স্বীকৃতি পেয়ছে। ২০১১ সালের পর থেকে রাজ্যের গ্রামাঞ্চলে শৌচাগার নির্মাণে বিশেষ জোর দিয়েছিল মমতা সরকার। এই নির্মল বাংলা প্রকল্প রূপায়নের জন্য জেলায় জেলায় বিশেষ কমিটিও গঠন করে দেওয়া হয়। এ পর্যন্ত ১ কোটি ৩৫ লক্ষ পরিবারে শৌচাগার তৈরি করে নজির গড়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার।

Comments
Loading...