আপনার কি আধার কার্ড, পাসপোর্ট, ভোটার আই কার্ড বা ড্রাইভিং লাইসেন্স আছে? তাহলে প্রস্তাবিত এনপিআর ২০২০ তে সেই তথ্য জানানো আবশ্যিক। বুধবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সূত্রে এমনই জানানো হয়েছে। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে কোনও নথি দেখাতে হবে না। প্রসঙ্গত, আগামী ১ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে এনপিআর। তার জন্য ১৭ জানুয়ারি দিল্লিতে মিটিং ডেকেছে কেন্দ্র।
কিন্তু আগে যে জানানো হয়েছিল, এই তথ্য দেওয়া ঐচ্ছিক। বৃহস্পতিবার তার ব্যাখ্যা দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। মন্ত্রকের এক সিনিয়র অফিসার জানিয়েছেন, স্বেচ্ছায় অথবা ঐচ্ছিক এই দুটি শব্দের অর্থ হল, যদি এই নথিগুলো (আধার, ড্রাইভিং লাইসেন্স, ভোটার আইডি কার্ড অথবা পাসপোর্ট) আপনার না থাকে তাহলে সেই তথ্য দেওয়ার প্রয়োজন নেই। কিন্তু কারও যদি এই সব নথি থাকে, তাহলে তাঁকে সেই তথ্য আবশ্যিকভাবেই জানাতে হবে। তবে এজন্য নথি দাখিল করার প্রয়োজন নেই। বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের মুখপাত্র ট্যুইট করে জানিয়েছেন, কেউ যদি নথি দেখাতে চান, তাহলে তা করতেই পারেন। কিন্তু সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে যিনি আপনার বাড়িতে যাবেন, তিনি কোনও নথি দেখতে চাইবেন না।
এবার দেখে নেওয়া যাক, এনপিআর-এর ক্ষেত্রে ঐচ্ছিক এবং বাধ্যতামূলক বা আবশ্যিকের আইনি পরিভাষা ঠিক কী?
কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, আপনার কাছে যদি আধার নম্বর, পাসপোর্ট, ড্রাইভিং লাইসেন্স অথবা ভোটার আইডি কার্ড না থাকে, তাহলে এনপিআর ফর্মে সেই জায়গা ফাঁকা রাখা যেতে পারে। আর আবশ্যিক বা বাধ্যতামূলকের আইনি পরিভাষা হল, এই সমস্ত নথি দাখিলের প্রেক্ষিতে এনপিআর ফর্ম পূরণ করা।
সূত্রের খবর, গত বছরের প্রাক জনগণনা প্রক্রিয়ায় ৮০ শতাংশেরও বেশি মানুষ স্বেচ্ছায় আধার নম্বর দিয়েছেন। কিন্তু সমস্যা হয়েছে প্যান কার্ডের ডিটেলস নিয়ে। বিপুল সংখ্যক মানুষ নিজের প্যান নম্বর জানাতে রাজি হননি। এই কথা চিন্তা করে পরবর্তীতে এনপিআর ফর্ম থেকে প্যান কার্ডের বিষয়টিই বাদ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু প্যান নম্বর দিতে কেন আপত্তি? বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে, প্যানের সঙ্গে যেহেতু আর্থিক বিষয়টি জড়িয়ে থাকে, তাই সেই নম্বর দিতে সংশয়ে থাকেন মানুষ।
অর্থাৎ, একটা বিষয় পরিষ্কার, আপনার কাছে যদি আধার, ভোটার আইডি, ড্রাইভিং লাইসেন্স কিংবা পাসপোর্ট থাকে, তাহলে এনপিআরের জন্য আপনাকে সেই তথ্য দিতেই হবে। এটা আবশ্যিক। কিন্তু যদি আপনার কাছে সেই নথি না থাকে তাহলেই একমাত্র তা ঐচ্ছিক। কিন্তু যদি দেখা যায় নথি থাকা সত্ত্বেও আপনি সেই তথ্য দেননি তাহলে? সেক্ষেত্রে আপনার বিরুদ্ধে ১ হাজার টাকা অবধি ফাইন ধার্য করা হতে পারে।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা শুরু করেছি সাবস্ক্রিপশন অফার। নিয়মিত আমাদের সমস্ত খবর এসএমএস এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে পাওয়ার জন্য দয়া করে সাবস্ক্রাইব করুন। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Subscribe