মানুষের ক্রয়ক্ষমতা ৪০ বছরে সর্বনিম্ন! কোপ গ্রামীণ ভারতের খাবার থালায়, কমছে মাথাপিছু খরচের ক্ষমতা

একদিকে যখন দেশে বাড়ছে সুপার রিচের সংখ্যা তখন লাফিয়ে বেড়ে চলা বৈষম্যের দিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিল অক্সফ্যামের রিপোর্ট। জানিয়েছিল, ধনীরা মাত্রাছাড়া বেগে আরও বড়লোক হচ্ছেন। একই গতিতে ঠিক উল্টো জিনিস হচ্ছে দেশের গরিব এবং প্রান্তিক মানুষের ক্ষেত্রে। তাঁদের রোজগার কমছে, তাই বাধ্য হয়ে বেঁচে থাকতে কাটছাঁট করতে হচ্ছে দৈনন্দিন খাওয়ার খরচ! এবার সেই ভয়ঙ্কর বৈষম্যে পড়ল সরকারি শিলমোহর। দেশজুড়ে ক্রয়ক্ষমতা কমছে মানুষের। কৃষিপ্রধান ভারতে দুর্বল হচ্ছে গ্রামীণ অর্থনীতি। ন্যাশনাল স্ট্যাটিস্টিক্যাল অফিসের একটি অপ্রকাশিত রিপোর্টকে তুলে ধরে এমনই দাবি করল সর্বভারতীয় ইংরেজি সংবাদপত্র বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড। যা বলছে, বিগত চার দশকে এই প্রথমবার ৩.৭ শতাংশ কমল উপভোক্তার ক্রয়ক্ষমতা। এই রিপোর্ট এখনও পর্যন্ত অপ্রকাশিত। যদিও তা প্রকাশ করার কথা ছিল এবছর জুন মাসে। রিপোর্টে উল্লিখিত তথ্যই কি রিপোর্ট প্রকাশ না হওয়ার কারণ? উত্তর নেই এই প্রশ্নের।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এনএসও শেষবার এমন পতন দেখিয়েছিল ১৯৭২-৭৩ সালে। যখন সারা বিশ্ব তেলের যোগানের চরম সঙ্কটে ভুগছিল। তারপর মোদী জমানায় ফিরল ক্রয়ক্ষমতায় এমন বেনজির পতন। চাহিদার অভাবে ভোগা ভারতীয় অর্থনীতির যে ভিতর থেকে ঝাঁঝরা হওয়ার দশা, এনএসওর অপ্রকাশিত রিপোর্টে যেন তারই স্পষ্ট ইঙ্গিত।

 

Comments
Loading...