অনুমতি ছাড়াই ডেটিং অ্যাপের বিজ্ঞাপনে নুসরতের ছবি, লালবাজারে অভিযোগ অভিনেতা-সাংসদের

লকডাউনে রমরমা বেড়েছে ভার্চুয়াল ডেটিং অ্যাপের। আর এমনই এক ডেটিং অ্যাপের বিজ্ঞাপনে বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা হল তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেতা নুসরত জাহানের ছবি। বিষয়টি নজরে আসতেই কলকাতা পুলিশের সাইবার সেলে অভিযোগ জানিয়েছেন বসিরহাটের সাংসদ।
বিনা অনুমতিতে তারকাদের ছবি পণ্যের বিজ্ঞাপনে ব্যবহার করে ফায়দা লোটার কাহিনি নতুন নয়। এবার সেই ঘটনা পরম্পরায় নাম উঠল অভিনেতা নুসরত জাহানের। লকডাউনের সময় ঘরবন্দি জনতার একাংশকে আনন্দ ফুর্তির রসদ যোগান দিতে রমরমা শুরু হয়েছে অনলাইন ডেটিং অ্যাপের। এমনই এক ডেটিং অ্যাপ FancyU এর বিজ্ঞাপনে নুসরত জাহানের ছবি ব্যবহার করে ইংরেজি হরফে হিন্দিতে ক্যাচলাইন লেখা হয়েছে, লকডাউনে ঘরে বসে নতুন বন্ধু বানান।
২১ সেপ্টেম্বর, সোমবার নুসরত জাহানের নজরে বিষয়টি আসতেই তিনি কলকাতা পুলিশের সাইবার সেলে অভিযোগ করেন। ট্যুইটে লেখেন, আইনি পথে যেতে চান তিনি।
অভিনেতার অভিযোগ পাওয়ার পরই তদন্তে নেমেছে সাইবার সেল। দ্রুত ওই ডেটিং অ্যাপ সংস্থার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
বসিরহাটের সাংসদ নুসরত জাহান সোশ্যাল মিডিয়ায় যথেষ্ট অ্যাকটিভ। ট্যুইটার হ্যান্ডেলে বাঙালি নারী থেকে শুরু করে আজকের রাজনীতি, বিভিন্ন ইস্যুতে নিজের এবং দলের মত বরাবরই দৃঢ়ভাবে প্রকাশ্যে জানিয়ে আসছেন নুসরত জাহান। এবার সেই নুসরতেরই ছবি ব্যবহার করে দেদারে বিজ্ঞাপন দেওয়ার অভিযোগ উঠল একটি অনলাইন ডেটিং অ্যাপ সংস্থার বিরুদ্ধে। নুসরত বলছেন, অনুমতি ছাড়া এভাবে ছবি দিয়ে বিজ্ঞাপন করা আইনের চোখে অপরাধ। তাই পুলিশের মাধ্যমে আইনি পথে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সম্মতি ছাড়া আমার ছবি ব্যবহার করা কখনওই গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। কলকাতা পুলিশের সাইবার সেলকে তাই আমি বিষয়টি বিশেষভাবে খতিয়ে দেখতে অনুরোধ করেছি। আমি নিশ্চিত দোষীরা শাস্তি পাবে। লালবাজার সূত্রে খবর, আইটি অ্যাক্টে মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু হয়ে গিয়েছে।

Comments
Loading...