মাত্র ১০ লক্ষ টাকা ঘুষের মামলায় চিদম্বরমকে ধরতে পাঁচিল টপকেছিল সিবিআই! চার্জশিটে ছাড় ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়কে

আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় শুক্রবার দিল্লির বিশেষ সিবিআই আদালতে চিদম্বরমের বিরুদ্ধে চার্জশিট পেশ করেছে সিবিআই। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা এখনও পর্যন্ত জানতে পেরেছেন এই মামলায় মাত্র ১০ লাখ টাকার মতো ঘুষ দেওয়া হয়েছিল।

চার্জশিটে সিবিআই দাবি করেছে, মুম্বইয়ের মিডিয়া সংস্থা আইএনএক্স একটি পরামর্শকারী সংস্থাকে কোনও পরিষেবা না দেওয়া সত্ত্বেও প্রায় ৯.৯৬ লক্ষ টাকা দিয়েছিল। চিদম্বরম পুত্র কার্তি এই পরামর্শকারী সংস্থার মালিক বলে সিবিআই সূত্রে খবর।

আর এখানেই উঠছে প্রশ্ন। কোটি কোটি টাকা দুর্নীতির অভিযোগে রাতের অন্ধকারে দেওয়াল টপকে ভিতরে ঢুকে, চূড়ান্ত নাটকীয় পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যে চিদম্বরমকে গ্রেফতার করেছিল সিবিআই, সেই মামলার চার্জশিটে মাত্র ১০ লক্ষ টাকা ঘুষের দাবি!

গত ২০ শে অগাস্ট আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় বড়সড় দুর্নীতির অভিযোগে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের হাতে গ্রেফতার হন প্রাক্তন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী পি চিদম্বরম। সেই গ্রেফতারি নিয়ে চলে দিনভর নাটক। সেদিন সাংবাদিক বৈঠকের পর, কংগ্রেস দফতর থেকে বাড়ি ফিরে গিয়েছিলেন চিদম্বরম। তখন তাঁর পিছু ধাওয়া করে সিবিআই-ও। দরজা না খোলায়, পাঁচিল টপকেই চিদম্বরমের বাড়িতে ঢোকেন সিবিআই অফিসাররা। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীকে গ্রেফতার করা হয়।

কদিন আগেই সংবাদসংস্থা পিটিআই সিবিআই সূত্রকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছিল, আইএনএক্স কাণ্ডে প্রায় ৫০ লক্ষ মার্কিন ডলার ঘুষ দেওয়ার কথা জানতে পেরেছেন গোয়েন্দারা। কিন্তু কার্যক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার সরকারি বিবৃতিতে দেখা গেল, মাত্র ৯.৯৬ লক্ষ টাকা বাদে আর কোনও ঘুষের কথাই নেই। সম্পূর্ণ চার্জশিটে কি আইএনএক্স মামলায় ঠিক কত টাকা ঘুষ হিসেবে দেওয়া হয়েছে, তা জানা যাবে? উত্তর মেলেনি।

সিবিআই জানিয়েছে, বিদেশে কত অর্থ লেনদেন হয়েছিল তা জানতে সিঙ্গাপুর, মরিশাস, বারমুডা, ইংল্যান্ড এবং সুইজারল্যান্ডকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। তদন্ত প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হলে ঘুষের সঠিক অঙ্ক জানা যাবে।

সিবিআইয়ের চার্জশিটে সপুত্র চিদম্বরম সহ ১৪ জনের নাম রয়েছে। নাম নেই আইএনএক্স মিডিয়ার প্রতিষ্ঠাতা ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়ের। নিজের মেয়ে শিনা বোরাকে খুনের অভিযোগে বর্তমানে জেলবন্দি ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়কে রাজসাক্ষী করা হয়েছে। তাই তাঁর বিরুদ্ধে কোনও চার্জ আনেনি সিবিআই।

এদিকে সুপ্রিম কোর্টে চিদম্বরমের জামিনের মামলায় শুনানি শেষ। মামলায় প্রাক্তন কেন্দ্রীয়মন্ত্রীর জামিনের পক্ষে সওয়াল করতে গিয়ে আইনজীবী কপিল সিব্বল বলেন, চিদম্বরম শারীরিকভাবে অসুস্থ। জেলে গত ৪৩ দিনে তাঁর ওজন কমেছে ৫ কেজি। নিয়মিত ওষুধ খেতে হচ্ছে। তাই তাঁকে জামিন দেওয়া হোক। জামিনের বিরোধিতা করেছেন সিবিআইয়ের আইনজীবীরা। আদালত দুপক্ষের সওয়াল জবাব শোনার পর রায়দান স্থগিত রেখেছে।

Comments
Loading...