আসন্ন সার্ক সম্মেলনে মোদীকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছে পাকিস্তান

ভারত-পাকিস্তান সীমানায় জঙ্গি হানার অভিযোগে, ২০১৬ সালে পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত হওয়া ১৯ তম সার্ক সম্মেলন বয়কট করেছিল ভারত। ভারতের সঙ্গে আফগানিস্তান, বাংলাদেশ এবং ভূটানও যোগদান না করায় বাতিল হয় সেই সম্মেলন।
এবছর পাকিস্তানে হতে চলা ‘সার্ক’ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আমন্ত্রণ করা হবে বলে মঙ্গলবার জানালেন পাকিস্তান বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র ডঃ মহম্মদ ফয়জল। আমন্ত্রণ পত্র পেলে মোদী আদৌ পাকিস্তানে যাবেন কিনা তা যদিও এখনও স্পষ্ট নয়। এরই মধ্যে এদিনই কার্তারপুর করিডোর খোলার অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পাকিস্তানে গিয়েছেন নভজ্যোৎ সিংহ সিধু।
চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসে জম্মু-কাশ্মীরে জঙ্গি হানায় ১ ভারতীয় সেনা ও ৩ পুলিশ কর্মীর মৃত্য হয়। সেই সময় পাকিস্তানের ডাকা বৈঠক বাতিল করেছিল ভারত। এপ্রসঙ্গে বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ মন্তব্য করেছিলেন,’সন্ত্রাস ও আলোচনা একসঙ্গে চলতে পারে না।’
রাষ্ট্র সংঘের বৈঠকেও বিদেশমন্ত্রী আভাষ দিয়েছিলেন, সন্ত্রাসবাদ নিয়ে পাকিস্তান কড়া অবস্থান না নিলে কোনও আলোচনাতেই যাবে না ভারত।
অমৃতসরের জঙ্গি হানায় পঞ্জাব মুখ্যমন্ত্রী অমরেন্দ্র সিংহ সরাসরি পাকিস্তানের দিকে আঙুল তুলেছেন। ঘটনার প্রতিবাদে কার্তারপুর করিডর খুলে দেওয়ার অনুষ্ঠানে যোগ দেননি পঞ্জাব মুখ্যমন্ত্রী।
বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজও অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারবেন না বলে জানিয়ে দেন। দেশের হয়ে উপস্থিত থাকবেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরসিমরাট কউর বাদল ও হরদীপ সিংহ পুরী।
অন্যদিকে, কংগ্রেস নেতা নভজ্যোৎ সিংহ সিধু কার্তারপুর করিডর অনুষ্ঠানে যোগদান করতে মঙ্গলবারই পাকিস্তানে পৌঁছেছেন, যা নিয়ে ইতিমধ্যেই অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন অনেকে। মুখ্যমন্ত্রী অমরেন্দ্র সিংহও অসন্তুষ্ট বলে খবর। তবে সিধু সে সব পাত্তা দিতে নারাজ। তাঁর মতে, ধর্মীয় ঐক্যকে রাজনীতির চোখে দেখতে নেই।
ইমরানের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে গিয়ে পঞ্জাবের মন্ত্রী নভজ্যোৎ সিংহ সিধুর পাকিস্তান সেনা প্রধানকে আলিঙ্গন নিয়ে সমালোচনায় মুখর হয়েছিলেন অনেকে। তবে এদিন সিধু বলেন, দুই পঞ্জাবি দেখা হলে এভাবেই সৌজন্য বিনিময় করে। মোদী সরকারকে কটাক্ষ করে সিধুর বক্তব্য, ‘এই আলিঙ্গন সৌজন্য বিনিময়ের, রাফাল ডিল নয়।’

Comments
Loading...