পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে কাটল না জটিলতা

রাজ্যে পঞ্চায়েত ভোট আদৌ নির্ধারিত সময়ে হবে কিনা তা নিয়ে জটিলতা সোমবারও কাটল না। এদিন পর্যন্ত সমস্ত নির্বাচন প্রক্রিয়ার ওপর স্থগিতাদেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ। এদিন দুপুরে সিঙ্গল বেঞ্চে এই মামলার শুনানি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই তৃণমূল কংগ্রেস এবং রাজ্য নির্বাচন কমিশন হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে রিট পিটিশন দাখিল করে। সিঙ্গল বেঞ্চে মামলা চলাকালীন কেন তাঁরা ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন জানিয়েছেন তা তৃণমূল কংগ্রেস এবং রাজ্য নির্বাচন কমিশনের আইনজীবীদের কাছে জানতে চায় ডিভিশন বেঞ্চ। যদিও তার কোনও সুদুত্তর তাঁরা দিতে পারেননি। মধ্যে দুপুরে সিঙ্গল বেঞ্চে মামলার শুনানি শুরু হয়। মঙ্গলবার ফের শুনানির দিন ধার্য করেছে সিঙ্গল বেঞ্চ। বিকেলে ডিভিশন বেঞ্চ তৃণমূল কংগ্রেস এবং রাজ্য নির্বাচন কমিশনের আবেদন সিঙ্গল বেঞ্চেই ফেরত পাঠিয়েছে। গোটা বিষয়টাই রাজ্য সরকারের কাছে বড় ধাক্কা বলেই দাবি বিরোধিদের। এদিন পঞ্চায়েত ভোটে শাসক দলের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে কলকাতায় মিছিল করে বামেরা।
এদিকে পঞ্চায়েত ভোটকে কেন্দ্র করে জটিলতা তৈরি হওয়ায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে রাজ্যের শাসক দল। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের অভিযোগ, বিরোধীদের পায়ের তলায় মাটি নেই। তাই মামলা করে ভোট পিছিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছে। গত ২০১৩ সালেও রাজ্যের সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের আইনি লড়াইয়ের জেরে পঞ্চায়েত ভোট অনেক পিছিয়ে গিয়েছিল। আগামী ১, ৩ এবং ৫ মে তিন দফায় পঞ্চায়েত ভোট ঘোষণা করেছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। আদৌ তা সে সময়ে হবে কিনা তা নিয়েই তৈরি হয়েছে সংশয়।

Comments
Loading...