প্যারা টিচারদের মাইনে ৪ থেকে ১০ হাজার টাকা করা হয়েছে, আন্দোলনের নামে ব্ল্যাকমেল করবেন না: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

প্যারা টিচারদের বেতন ৪ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা করা হয়েছে, তারপরেও কালো ব্যাজ পরে প্যারা টিচারদের আন্দোলনের সমালোচনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার হাওড়ার প্রশাসনিক বৈঠক থেকে মমতা প্রশ্ন তুললেন, শিক্ষকদের এই আন্দোলন থেকে বাচ্চারা কী শিখবে?
মুখ্যমন্ত্রী বলেন, শিক্ষকদের সম্মান করি, কিন্তু যেভাবে কালো ব্যাজ পরে প্যারা টিচাররা আন্দোলনে নামছেন তা ঠিক নয়। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, কোথা থেকে টাকা পাবে রাজ্য সরকার? লাফিয়ে লাফিয়ে কত বেতন বাড়াবে রাজ্য সরকার? মমতা বলেন, ধর্মঘট সংস্কৃতির বিপক্ষে তাঁর সরকার। তাঁর কথায়, এখন কেউ চাকরি পেয়ে গেলেই পরের দিন চলে আসছেন মাইনে বাড়াতে। তিনি বলেন, মানবিক দিক বুঝি, কিন্তু এভাবে ‘ব্ল্যাকমেল’ করবেন না। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, সাধারণ মানুষ নন, কয়েকটি রাজনৈতিক দলের কারণেই এইসব আন্দোলন সংগঠিত হচ্ছে। এরপরেই মোদী সরকারকে নিশানা করে মুখ্যমন্ত্রীর তোপ, সর্বশিক্ষা অভিযানের প্রকল্পের টাকাও নিয়মিত দিচ্ছে না কেন্দ্র, কীভাবে সবার বেতন বাড়াবেন তিনি সেটাও বোঝা উচিত আন্দোলনকারীদের। তিনি আরও বলেন, এখন ১ তারিখ হলেই মাইনে পেয়ে যান শিক্ষকরা। মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, বিজেপি শাসিত অন্যান্য রাজ্যে যখন পেনশন স্কিম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে, তখন মানবিক দিক থেকে এ রাজ্যের সরকারি কর্মীদের পেনশন স্কিম তুলে দেননি তাঁরা। যতটা পারছে তাঁর সরকার চেষ্টা করছে বলে জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্যারা টিচারদের উদ্দেশে মমতার বার্তা, ধর্মঘট করে এভাবে রাজ্যকে পিছিয়ে দেবেন না, বাম আমলের ৩৪ বছরে এই ‘ধর্মঘট সংস্কৃতি’তে রাজ্যের অনেক ক্ষতি হয়েছে বলে মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী।

Comments
Loading...