ক্যান্সার রোগীদের করোনায় মৃত্যুহার অনেক বেশি, বলছে মার্কিন সমীক্ষা

ক্যান্সার রোগীরা করোনায় আক্রান্ত হলে, তাঁদের মৃত্যুহার তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি। সাম্প্রতিক সমীক্ষায় জানালেন আমেরিকার গবেষকরা।
কোনও ক্যান্সার আক্রান্তের উপর করোনাভাইরাসের প্রভাব কতটা বিপজ্জনক? ক্যান্সারজনিত অসুখে ভোগা রোগী কোভিড-১৯ এর শিকার হলে, মৃত্যুহারই বা কেমন – এইসব প্রশ্নের উত্তর পেতে একটি সমীক্ষা চালান আমেরিকার একদল বিশেষজ্ঞ।
সম্প্রতি নিউইয়র্কের মন্টিফায়োর মেডিক্যাল সেন্টার ও অ্যালবার্ট আইনস্টাইন কলেজ অফ মেডিসিনের চিকিৎসক ও গবেষকদের এই সমীক্ষা প্রকাশিত হয়েছে ক্যান্সার ডিসকভারির অনলাইন সংস্করণে। যেখানে দাবি করা হয়েছে, ক্যান্সার আক্রান্তরা যদি কোভিড-১৯ এও আক্রান্ত হন, অন্যান্য করোনা রোগীর তুলনায় তাঁদের মৃত্যহার অনেক বেশি হতে পারে।
১৭ মার্চ থেকে ৮ এপ্রিল নিউইয়র্কের মন্টিফায়োর মেডিক্যাল সেন্টারে করোনা পজিটিভ ২১৮ জন রোগীর উপর সমীক্ষা চালানো হয়। এই ২১৮ জনের মধ্যে ৬১ জনেরই মৃত্যু হয় চিকিৎসাধীন অবস্থায়, মৃত্যুহার ২৮ শতাংশ। যেখানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) এর তথ্য অনুযায়ী আমেরিকায় মোটের উপর করোনা আক্রান্তের মৃত্যুহার ৫.৮ শতাংশ।
গবেষকরা জানাচ্ছেন, এই ক্যান্সার রোগীদের করোনা ধরা পড়ে যখন হাসপাতালে উপসর্গহীনদের জন্য করোনা টেস্ট শুরু হয়। দেখা যায়, কোভিড-১৯ পজিটিভ অন্যান্যদের চেয়ে ক্যান্সার আক্রান্ত করোনা পজিটিভদের মৃত্যুহার উল্লেখযোগ্যভাবে বেশি।
কোভিড-১৯ এর রোগী এমন ব্লাড ক্যান্সার আক্রান্তদের মৃত্যুহার ৩৭ শতাংশ বলে জানাচ্ছে এই সমীক্ষা। লিউকেমিয়া, লিম্ফোমায় ভোগা ৫৪ জন করোনা রোগীর মধ্যে ২০ জনই মারা গিয়েছেন। ‘সলিড ম্যালিগনেন্সি’ থাকা রোগীদের মৃত্যুহার ২৫ শতাংশ। লাং ক্যান্সারে ভোগা করোনা আক্রান্তের মৃত্যুহার ৫৫ শতাংশ এবং কলোরেক্টাল ক্যান্সারে আক্রান্ত এবং করোনা পজিটিভ আসা মানুষের মৃত্যুহার ৩৮ শতাংশ বলে সমীক্ষায় প্রকাশ। এছাড়া ব্রেস্ট ক্যান্সার ও প্রস্টেট ক্যান্সার রোগী যাঁরা করোনায় আক্রান্ত হয়ে নিউইয়র্কের ওই হাসপাতালে ভর্তি হন, তাঁদের মৃত্যুহার যথাক্রমে ১৪ এবং ২০ শতাংশ।

এই গবেষণা আমেরিকা এবং করোনা আক্রান্ত অন্যান্য দেশকে সজাগ ও সাবধান করবে বলে মনে করছেন এই রিপোর্টের অন্যতম লেখক তথা মন্টিফায়োর হাসপাতালে সার্জিক্যাল অঙ্কোলজিস্ট ও অধ্যাপক বিকাশ মেহেতা।

Comments
Loading...