দাবি উঠেছিল আগেই, এবার সুপ্রিম কোর্টে মামলা হল সংবিধানের প্রস্তাবনা থেকে সমাজতান্ত্রিক বা Socialist ও ধর্মনিরপেক্ষ বা Secular শব্দ দুটি বাদ দেওয়ার দাবিতে। এই শব্দ দুটি ভারতীয় ঐতিহ্যের পরিপন্থী এবং বামপন্থী চেতনায় অনু্প্রাণিত, বলা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টে করা আবেদনে।
২০১৬ সালে ঠিক একই দাবিতে এলাহাবাদ হাইকোর্টে মামলা দায়ের হয়েছিল। কিন্তু আদালত মামলা গ্রহণ করেনি। সে যাত্রায় আটকে গেলেও এবার নতুন করে সর্বোচ্চ আদালতে আপিল। মামলাটি করেছেন বলরাম সিংহ ও করুণেশ শুক্লা নামে দুই আইনজীবী। তাঁদের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন জনৈক প্রবেশ কুমার।
১৯৭৬ সালে ৪২ তম সংবিধান সংশোধনী হিসেবে ২(A) ধারায় সমাজতান্ত্রিক ও ধর্মনিরপেক্ষ শব্দ দুটি যুক্ত করা হয়। এই শব্দ দুটি নিয়ে আরএসএসের আপত্তি আজকের নয়। অভিযোগ, ক্ষমতায় আসার পর বিভিন্ন অছিলায় মোদী সরকারও এই শব্দ দুটি এডিট করেছিল। এবার সরাসরি মামলা দায়ের হয়ে গেল সুপ্রিম কোর্টে। আবেদনে দাবি করা হয়েছে, প্রস্তাবনায় সমাজতান্ত্রিক ও ধর্মনিরপেক্ষ শব্দ দুটির অন্তর্ভুক্তি সংবিধানেরই পরিপন্থী। এই শব্দ দুটি আসলে সংবিধানেরই বাক স্বাধীনতা ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা এবং ধর্মীয় স্বাধীনতার পরিপন্থী। মামলায় বলা হয়েছে, সংবিধানে এই শব্দ দুটি মার্কসের ভাবধারায় অনুপ্রাণিত হয়ে যোগ করা হয়েছে। যা ভারতীয় ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির সঙ্গে সম্পূর্ণ বেমানান।
আবেদনে আরও বলা হয়েছে, ভারতে কোনও রাজনৈতিক দলের রেজিস্ট্রেশন করাতে সংবিধানের প্রস্তাবনায় থাকা ধর্মনিরপেক্ষ ও সমাজতান্ত্রিক শব্দ দুটি বাধ্যতামূলকভাবে দলের সংবিধানে থাকতে হয়। আবেদনকারীরা সর্বোচ্চ আদালতের কাছে আর্জি জানিয়েছেন, যাতে এই নিয়মেরও বদল করার নির্দেশ দেওয়া হয়

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us

You may also like

Salman Khurshid in Delhi Riot
Assam Syllabus Change