হটস্পটে লকডাউন রেখে বাকি অংশে স্বাভাবিক কাজ শুরু নিয়ে আলোচনা, প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকে দ্বিধাবিভক্ত মুখ্যমন্ত্রীরা

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীদের ভিডিও কনফারেন্স শেষ। বৈঠকে লকডাউন তোলা নিয়ে আলোচনা হলেও তা তোলার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি বলে সূত্রের খবর। বৈঠকে উপস্থিত একাধিক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যেমন লকডাউন অব্যাহত রাখার সওয়াল করেছেন, পাশাপাশি একাধিক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সংক্রমণের মাত্রা ধরে লকডাউন তোলার ব্যাপারে দাবি জানিয়েছেন। তবে এনিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। সূত্রের খবর, ২ মে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, ৩ মের পর হটস্পট ধরে লকডাউন জারি রাখার বিষয়ে ভাবনাচিন্তা চলছে। বাকি অংশে স্বাভাবিক কাজকর্ম শুরুর কথা ভাবা হচ্ছে। তিনি বলেন, অন্যান্য অনেক দেশের তুলনায় ভারতের পরিস্থিতি ভালো। লকডাউনের সুফলও মিলেছে। কিন্তু এ নিয়ে তাড়াহুড়ো করতে চায় না সরকার।

উপস্থিত মুখ্যমন্ত্রীদের লকডাউন পরবর্তী ব্লু প্রিন্ট তৈরিরও পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। পাশাপাশি মাস্ক বাধ্যতামূলক এবং একে অপরের সঙ্গে অন্তত ২ গজ দূরত্ব বজায় রাখার ব্যাপারেও সচেতনতা প্রসারের ক়থা বলেছেন মোদী। রাজ্যগুলোর কাছে প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ জেলা ধরে ধরে সংক্রমণের মাত্রা দেখে রেড, অরেঞ্জ এবং গ্রিন জোন চিহ্নিত করে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তৈরি করুন। সেক্ষেত্রে লকডাউন উঠে গেলে অরেঞ্জ ও গ্রিন জোনে স্বাভাবিক কাজকর্ম শুরু করা যেতে পারে।

অর্থনৈতিকভাবে ভারত মজবুত জায়গায় আছে বলেও এদিন মুখ্যমন্ত্রীদের অবহিত করেছেন নরেন্দ্র মোদী বলে সূত্রের খবর।

Comments
Loading...