শহরে ফের ভুয়ো সিবিআই, ৪০ লক্ষ টাকা প্ৰতরণার অভিযোগে গ্রেফতার অভিযুক্ত

দেবাঞ্জন কাণ্ডের পর গ্রেফতার হয়েছে একাধিক ভুয়ো আধিকারিক। এবার পুলিশের জালে আরেক ভুয়ো সিবিআই আধিকারিক। নিজেকে সিবিআই অফিসার পরিচয় দিয়ে ৪০ লক্ষ টাকা প্ৰতরণার অভিযোগ উঠল এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। সোমবার বরাহনগর থেকে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করল পুলিশ।

বরাহনগরের বাসিন্দা কৃশানু মণ্ডলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি এক আইনজীবী দম্পতিকে সিবিআই দফতরে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে দফায় দফায় সর্বমোট ৪০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। অভিযোগকারী ওই দম্পতি জানান, ২০১৬ সালে জমি রেজিস্ট্রেশন করতে গিয়ে ধৃতের সঙ্গে তাঁদের আলাপ হয়। পরে ওই যুবক নিজেকে সিবিআই অফিসার বলে পরিচয় দেন। এরপর সিবিআই দফতরে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নামে এই বিপুল অঙ্কের টাকা আত্মসাৎ করেন।

দফায় দফায় ওই দম্পতির কাছ থেকে টাকা নিলেও চাকরিতে নিয়োগ সংক্রান্ত কোনও কাগজই দেখতে পারেন না অভিযুক্ত। এর পর ওই দম্পতি থানার দ্বারস্থ হন। ধৃতের কাছ থেকে একাধিক ভুয়ো নথি সংগ্রহ করেছে পুলিশ। পুলিশের অনুমান এই চক্রের সঙ্গে আরও অনেক জড়িত। বাকিদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

দেবাঞ্জন কাণ্ডের পরেই নড়েচড়ে বসে রাজ্যের পুলিশ প্রশাসন। ভুয়ো আইএএস দেবাঞ্জনের গ্রেফতারির পরেই একে একে পুলিশের জালে ধরা পড়ে একাধিক প্রতারক। আর এবার খোদ আইনজীবী দম্পতির প্ৰতরণার ঘটনায় কার্যত চক্ষু চড়কগাছ পুলিশের।

Comments
Loading...