বাতাসে বিষ! ২০১৯ সালে ভারতে ১ লক্ষ ১৬ হাজার সদ্যোজাতর মৃত্যুর কারণ দূষণ, রিপোর্ট মার্কিন সংস্থার

দেশে ১ লক্ষ ১৬ হাজার সদ্যোজাতর মৃত্যুর সঙ্গে জড়িয়ে আছে দূষণ! আরও খুলে বললে বায়ু দূষণ। ২০১৯ সালে জন্মের একমাসের মধ্যেই সদ্যোজাতদের মারা যাওয়ার বড়ো কারণ ছিল বাড়ি এবং বাড়ির বাইরের বস্তুকণা বা পার্টিকুলেট ম্যাটার। চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট আমেরিকার হেলথ এফেক্টস ইনস্টিটিউটের।
সমীক্ষায় বিশেষ নজর দেওয়া হয় দক্ষিণ এশিয়ার দিকে। যেখানে outdoor air pollution বা বাইরের বায়ুদূষণ তুলনামূলক ভাবে বেশি। রিপোর্টে বলা হয়েছে ভারত, বাংলাদেশ, পাকিস্তান, নেপালের মতো ১০ টি দেশে ২০১৯ সালে বায়ুদূষণ ভয়াবহ আকার নেয়। যেখানে খাবার তৈরির জন্য এখনও বেশিরভাগ গৃহস্থের ভরসা কাঠ, ঘুঁটের মতো জ্বালানি।
মার্কিন প্রতিষ্ঠানের ‘স্টেট অফ গ্লোবাল এয়ার’ শীর্ষক রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, ২০১৯ সালে ভারতে দূষণ সংক্রান্ত কারণে যে ১ লক্ষ ১৬ হাজার সদ্যোজাতের মৃত্যু হয়েছে, তার অর্ধেকের মৃত্যুর সঙ্গে জড়িয়ে আছে আউটডোর PM 2.5 এবং বাকিদের মৃত্যুর কারণ রান্নার জন্য ব্যবহৃত কাঠকয়লা, কাঠ এবং গোবরের মতো শক্ত জ্বালানীর দহন।
দীর্ঘমেয়াদিভাবে বাইরের এবং গৃহস্থালি বায়ু দূষণই ২০১৯ সালে দেশজুড়ে প্রায় ১৬ লক্ষেরও মানুষ স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাক, ডায়াবেটিস, লাং ক্যানসার, ক্রনিক লাং ডিজিস ও নবজাতকদের অসুখ-বিসুখ ঘটিয়েছে। সংশ্লিষ্ট রিপোর্ট জানাচ্ছে, সদ্যোজাতদের মৃত্যুর বৃহত্তম কারণ হিসেবে উঠে আসছে কম ওজন এবং নির্ধারিত সময়ের আগে জন্মানো (preterm baby)। এই রিপোর্টে বলা হয়েছে, সামগ্রিকভাবে সমস্ত স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে বায়ু দূষণ এখন মৃত্যুর অন্যতম বড়ো কারণ।

Comments
Loading...