প্রজ্ঞাকে নিয়ে অস্বস্তিতে বিজেপি, সরানো হল প্রতিরক্ষা কমিটি থেকে, সংসদে হল্লা কংগ্রেসের

ফের গান্ধী হত্যাকারী নাথুরাম গডসেকে ‘দেশভক্ত’ বলে মন্তব্য করায় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের পরামর্শদাতা কমিটি থেকে সরিয়ে দেওয়া হল বিজেপি সাংসদ প্রজ্ঞা সিংহ ঠাকুরকে। বুধবারই সংসদে দাঁড়িয়ে জাতির জনকের হত্যাকারীকে ‘দেশভক্ত’ সম্বোধন করে দলের অস্বস্তি বাড়িয়ে ছিলেন ভোপালের বিজেপি সাংসদ। ওই দিন কংগ্রেস সদস্যরা সংসদে তা নিয়ে হইচই করেন। বৃহস্পতিবারও অধীর চৌধুরী-সহ কংগ্রেস সদস্যরা চিৎকার চেঁচামেচি করেন। পরে কংগ্রেস ওয়াক আঊট করে লোকসভা থেকে। চাপের মুখে পড়ে লোকসভাতেই প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, এ ধরনের ভাবনা এবং বক্তব্যের কঠোর নিন্দা করছি আমরা। মহাত্মা গান্ধীর আদর্শ আজও প্রাসঙ্গিক এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। এর আগেই অবশ্য বিজেপির কার্যনির্বাহী সভাপতি জে পি নাড্ডা জানিয়ে দেন, প্রজ্ঞাকে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের পরামর্শদাতা কমিটি থেকে সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি তাঁকে দলের সংসদীয় বৈঠকেও যেতে নিষেধ করা হয়েছে।
লোকসভা ভোটের আগেও প্রজ্ঞা গডসেকে দেশপ্রেমিক বলে বিতর্ক সৃষ্টি করেন। তখন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ জানিয়েছিলেন, তাঁকে দশ দিনের মধ্যে শাস্তি দেওয়া হবে। কিন্তু কী শাস্তি দেওয়া হয়েছিল, তা আর প্রকাশ্যে আসেনি। আর নরেন্দ্র মোদী বলেছিলেন, মন থেকে ওঁকে কোনও দিন ক্ষমা করতে পারব না। পরে প্রজ্ঞা দলের কাছে ক্ষমাও চান। প্রধানমন্ত্রীর মন এখন কী বলছে, জানা যায়নি তাও। এবার দলের অন্দরে কিছু নেতা প্রজ্ঞাকে বহিষ্কার করারও দাবি তোলেন।
বিজেপির এই পদক্ষেপের বিষয়ে কংগ্রেসের কটাক্ষ, প্রজ্ঞাকে লোকসভা ভোটে টিকিট দিয়ে সংসদে ঢোকার প্রবেশপত্র দিয়েছে বিজেপি। এখন আর এ সব লোক দেখানো পদক্ষেপ করে কী লাভ?
Comments
Loading...