আন্দোলন করলেই অপরাধী? প্রশ্ন মমতার, রাজনৈতিক দল থেকে পড়ুয়া, সবাইকে এক ছাতার তলায় এসে আন্দোলনের ডাক

আন্দোলন করলে নাগরিকদেরই ‘ক্রিমিনাল’ বলে দেগে দেওয়া হচ্ছে, পুরুলিয়ায় পদযাত্রার সূচনায় মোদী সরকারকে তীব্র আক্রমণ মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির (Purulia Padyatra)।
সোমবার পুরুলিয়ায় নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি বিরোধী পদযাত্রায় (Purulia Padyatra) নেতৃত্ব দেন তৃণমূল নেত্রী। মিছিল শুরুর আগে সভায় মমতার অভিযোগ, নাগরিকদের অধিকার কেড়ে নিতে উদ্যত হয়েছে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার। কিন্তু কোনওভাবেই তা হতে দেওয়া যাবে। তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন যে কোনও নাগরিকের গণতান্ত্রিক অধিকার। সেই অধিকার ছিনিয়ে আন্দোলনকারীদের ‘অপরাধী’ বলে দাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে।
মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, এই আন্দোলন মাথার উপর ছাদ রক্ষার লড়াই। দেশের স্বাধীনতা আজ বিপদের মুখে দাঁড়িয়ে আছে। এই অবস্থায় বিজেপি বিরোধী সমস্ত রাজনৈতিক দল, ছাত্রছাত্রী, বিশিষ্টজনকে একসঙ্গে প্রতিবাদ করার আহ্বান জানান মমতা। তাঁর কথায়, সবাই মিলে বিজেপি-কে একা করে দিন। এরপরেই মুখ্যমন্ত্রীর কটাক্ষ, নিজের দেশের নাগরিকদের তাড়াতে গিয়েছিল বিজেপি। ঝাড়খণ্ডের মানুষ তাদেরই তাড়িয়ে দিয়েছে। একের পর এক রাজ্য বিজেপি-মুক্ত হচ্ছে। আর বাংলায় বিজেপি-কে দূরবিন দিয়ে খুঁজতে হয়। তাঁর অভিযোগ, নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি-র নামে নাগরিকদেরই ঘরছাড়া করার চেষ্টা করছে বিজেপি সরকার। শুধুমাত্র বিজেপি কর্মী-সমর্থকদেরই নাগরিকত্ব দেওয়ার চেষ্টা চলছে। কিন্তু তা কোনওভাবেই হতে দেওয়া যাবে না। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পর একের পর এক নির্বাচিত সরকার এসেছে। যাঁদের ভোটে সরকার তৈরি হয়েছে, সেই জনগণকেই তাড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।
পাশাপাশি তাঁর অভিযোগ, নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় ছাত্রদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনকে অগণতান্ত্রিকভাবে আটকানো হচ্ছে। তাঁদের হুমকি দেওয়া হয়েছে। সমস্ত ছাত্রছাত্রীর উদ্দেশে মমতার বার্তা, তাঁদের আন্দোলনে পূর্ণ সমর্থন রয়েছে তাঁর। প্রসঙ্গত, এদিনই কলকাতার কলেজ স্কোয়ার থেকে বিভিন্ন কলেজের পড়ুয়ারা নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি-র বিরোধিতায় মিছিল করেন। অন্যদিকে রবিবার কলকাতায় এসে কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়নমন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল মন্তব্য করেন, দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি রাজনীতির কেন্দ্র হয়ে উঠেছে। এই প্রবণতা কোনওভাবেই কেন্দ্র সহ্য করবে না বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, যে আঠারো বছর বয়সী পড়ুয়াদের ভোটে জিতে সরকার গড়ে বিজেপি, তারাই ছাত্রছাত্রীদের আন্দোলনের অধিকার কেড়ে নিচ্ছে।

Comments
Loading...