লকডাউনে ঘরবন্দি মানুষ, রাজ্যজুড়ে গানে, কবিতায় রবীন্দ্র জয়ন্তী পালন পুলিশের

নবান্নের নির্দেশে লকডাউনে বন্দি রাজ্যে কবিতা, গানের মধ্যে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৯ তম জন্মদিন পালন করল পুলিশ প্রশাসন। করোনা সংক্রমণ রুখতে লকডাউন সফল করার জন্য পুলিশকে অন্য ভূমিকায় দেখেছে রাজ্যবাসী। প্রয়োজনে যেমন কড়া পদক্ষেপ করেছে পুলিশ, তেমনই গান, শায়েরি ইত্যাদির মাধ্যমে লকডাউনের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে সাধারণ মানুষকে অবহিত করেছে কলকাতা ও রাজ্য পুলিশ।
এবার একইভাবে রাজ্য পুলিশের এডিজি (আইন-শৃঙ্খলা) জ্ঞানবন্ত সিংহ প্রতিটি জেলার পুলিশ সুপার ও কমিশনারেটের প্রধানদের নির্দেশ দেন, শুক্রবার ২৫ বৈশাখ উপলক্ষ্যে প্রতিটি আবাসিক এলাকা ও হাউজিং কমপ্লেক্সের কাছে রবীন্দ্রনাথের কাট-আউট নিয়ে ছোট ট্যাবলো বের করতে হবে পুলিশকে। সঙ্গে কয়েকটি নির্দিষ্ট রবীন্দ্রসংগীত ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির লেখা করোনা সতর্কতা সংক্রান্ত গান বাজাতে হবে।
সেই নির্দেশ অনুযায়ী এদিন সকাল ৯ টা থেকে সাড়ে ১১ টা পর্যন্ত জেলায় জেলায় চলে ‘কবি প্রণাম’ নামে এই অনুষ্ঠান। যে পুলিশকর্মীরা গান-বাজনায় দক্ষ, সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং মেনে এতে অংশগ্রহণ করেন তাঁরা। তার সঙ্গে চলে লকডাউন নিয়ে সতর্কতামূলক প্রচার।

এদিন লকডাউনের জেরে কলকাতার রবীন্দ্র সদনেও হয়নি চিরাচরিত অনুষ্ঠান। পাড়ায় পাড়ায় রবীন্দ্রজয়ন্তী আয়োজনের সুযোগ নেই। বাঙালি এই প্রথম পুরোপুরি সোশ্যাল মিডিয়ার উপর ভর করে রবীন্দ্র জয়ন্তী উদযাপন করল। প্রতিষ্ঠিত শিল্পী থেকে ছোট বড় ক্লাব ও সাংস্কৃতিক সংগঠন, সাধারণ রবীন্দ্র অনুরাগী থেকে বাড়ির কচিকাঁচারা এদিন ফেসবুক, জুম ভিডিও, হোয়াটসঅ্যাপ, টুইটারেই রবি-প্রণাম করেন।

 

Comments
Loading...