শেয়ার বাজারের কামাল, রাতারাতি দেশের ধনীদের তালিকায় দ্বিতীয় রাধাকিষেণ দামানি, শীর্ষেই মুকেশ আম্বানী

দেশের সবচেয়ে ধনী মানুষটির নাম মুকেশ আম্বানী। কিন্তু জানেন কি দ্বিতীয় স্থানে কে? গৌতম আদানি থেকে উদয় কোটাক, যাঁর নামই নিন না কেন, উত্তর ভুল হতে বাধ্য। কারণ কার্যত রাতারাতি তালিকায় দ্বিতীয়স্থানে উঠে এসেছেন শেয়ার বাজারের পোড় খাওয়া তথা অ্যাভেনিউ সুপারমার্টের কর্ণধার রাধাকিষেণ দামানি। এই খবর জানাচ্ছে ফোর্বসের রিয়েল টাইম বিলিওনিয়ার ইনডেক্স। এই মুহূর্তে রাধাকিষেণ দামানির সম্পদের পরিমাণ ১৭.৮ বিলিয়ন ডলার।

গত সপ্তাহে অ্যাভিনিউ সুপারমার্টসের শেয়ারের দামে ৫ শতাংশ বৃদ্ধি লক্ষ্য করা গিয়েছিল। এই বৃদ্ধির কাঁধে ভর দিয়েই এইচসিএলের শিব নাদার (১৬.৫ বিলিয়ন ডলার), কোটাক গ্রুপের উদয় কোটাক (১৪.৯ বিলিয়ন ডলার), আদানি গোষ্ঠীর প্রধান গৌতম আদানি (১৪.১ বিলিয়ন ডলার) এবং আর্সেলর মিত্তলের কর্ণধার লক্ষী মিত্তল (১২.১ বিলিয়ন ডলার) দের ছাপিয়ে গেলেন রাধাকিষেণ দামানি।

তবে দেশের সবচেয়ে ধনীর তকমা অবশ্য সুরক্ষিত রয়েছে মুকেশ আম্বানীর মাথাতেই। তাঁর সম্পদের পরিমাণ ৫৭.৪ বিলিয়ন ডলার। তাঁর ধারেকাছে কেউ নেই। ১৭.৮ বিলিয়ন ডলার সম্পদ নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন রাধাকিষেণ দামানি। দামানির পরে রয়েছেন শিব নাদার, উদয় কোটাক, গৌতম আদানিরা।

শেয়ার বাজার সূত্রের খবর, এ বছর ডি মার্টের পরিচালন সংস্থা অ্যাভেনিউ সুপারমার্টসের শেয়ার দরে ৩১ শতাংশ বৃদ্ধি হয়েছে। এর ফলে সংস্থার মার্কেট ক্যাপে অতিরিক্ত ৩৬ হাজার কোটি টাকা যোগ হয়। এই উত্তুঙ্গ মার্কেট ক্যাপের কাঁধে চেপেই উইপ্রো, ওএনজিসি, আল্ট্রাট্রেক সিমেন্ট এবং এইচডিএফসি লাইফ ইন্সিওরেন্সকে টেক্কা দিয়েছে দামানির সংস্থা।

২০১৯-২০ আর্থিক বছরের তৃতীয় ত্রৈমাসিকে অ্যাভেনিউ সুপারমার্টসের স্ট্যান্ডঅ্যালোন নেট প্রফিট ৫৩.৩ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৩৯৪ কোটি টাকা। গতবছরের একই সময় যা ছিল ২৫৭ কোটি টাকা।

Comments
Loading...