ভোটের ঠিক আগের দিন রাফাল মামলায় সুপ্রিম কোর্টে ধাক্কা কেন্দ্রের, সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত নথি নিয়ে ফের শুনানি হবে

প্রথম দফা নির্বাচনের ঠিক আগের দিন জোর ধাক্কা কেন্দ্রীয় সরকারের। রাফাল রায় পুনর্বিবেচনার জন্য তারিখ নির্ধারণ করা হবে বলে জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। রাফালের গোপন নথি চুরি করে রিভিউ পিটিশন দাখিল করা হয়েছে, সরকারের এই অভিযোগকে উড়িয়ে দিয়ে সংশ্লিষ্ট মামলার তারিখ নির্ধারণ করা হবে বলে বুধবার জানিয়ে দিল শীর্ষ আদালত। ফলে লোকসভা ভোটের মুখে নতুন করে অস্বস্তি বাড়ল মোদী সরকারের।
গত বছর কেন্দ্রের বিরুদ্ধে রাফাল যুদ্ধ বিমানের দাম সংক্রান্ত দুর্নীতি ও অনিল আম্বানীর সংস্থাকে নিয়ম বহির্ভূতভাবে যুদ্ধ বিমান বানানোর বরাত দেওয়ার অভিযোগে সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করে বিরোধীরা। ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে রাফাল মামলার শুনানিতে আদালত জানায়, রাফালের দাম সংক্রান্ত বিষয়ে আদালত হস্তক্ষেপ করতে পারে না। রাফাল চুক্তির সিদ্ধান্ত গ্রহণেও কোনও সংশয় নেই বলে জানায় শীর্ষ আদালত। এরপর, নরেন্দ্র মোদী সরকারের বিরুদ্ধে ওঠা রাফাল দুর্নীতিতে ক্লিন চিট দেয় সুপ্রিম কোর্ট।
কিন্তু বিরোধীরা এই রায়ে সন্তুষ্ট হয়নি। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণের হলফনামা ছাড়াও, রাফাল রায় পুনর্বিবেচনার জন্য আম আদমী পার্টির নেতা সঞ্জয় সিংহ একটি হলফনামা দাখিল করেন সুপ্রিম কোর্টে।
ফেব্রুয়ারি মাসে ‘দ্য হিন্দু’ সংবাদমাধ্যামের দুটি প্রতিবেদনে প্রকাশিত হয়। যার একটিতে দাবি করা হয়, রাফাল নিয়ে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের পাশাপাশি, ফ্রান্সের সঙ্গে সমান্তরাল আলোচনা চালিয়েছিল প্রধানমন্ত্রীর অফিস এবং অন্য প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, রাফাল চুক্তির সময় ৭ সদস্যের ইন্ডিয়ান নেগোশিয়েটিং টিমের (আইএনটি) প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ৩ সিনিয়র অফিসার নরেন্দ্র মোদী সরকারের আমলে হওয়া রাফাল ডিলের খরচ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। এমনকী তাঁরা এও জানিয়েছিলেন, যুদ্ধ বিমান ডেলিভারি দিতে অনেক বেশি সময় নিচ্ছে ফ্রান্স।
‘দ্য হিন্দু’ ও ‘দ্য ক্যারাভান’ সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত রিপোর্টকে সামনে রেখে রাফাল রায়ের পুনর্বিবেচনার জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ, যশোবন্ত সিনহা ও অরুণ শৌরি। এর আগে, এই মামলা চলাকালীন শীর্ষ আদালতে সরকার পক্ষ সওয়াল করেছিল, রাফাল নথি চুরি করা হয়েছে প্রতিরক্ষা দফতর থেকে। কিন্তু পরে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈর বেঞ্চে কেন্দ্র দাবি করে, রাফালের গোপন নথিপত্রের ফটোকপি করা হয়েছে।
বুধবার এই মামলার শুনানিতে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিল, রাফাল মামলায় গোপন নথি শুনানিযোগ্য। তা নিয়ে শুনানি হবে। ফলে এই মামলায় কেন্দ্র যে ক্লিন চিট পেয়েছিল, তা পুনর্বিবেচনা করা হবে।

Comments
Loading...