বুধবার লন্ডনে এদেশের পলাতক শিল্পপতি বিজয় মালিয়া দেশ ছাড়ার আগে তাঁর সঙ্গে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির বৈঠকের যে দাবি করেছেন তা নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে উঠল দিল্লির রাজনীতি। শুরু হল অভিযোগ, পালটা অভিযোগ। বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠক করে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী দাবি করলেন, পলাতক শিল্পপতি মালিয়ার বক্তব্য সঠিক। ২০১৬ সালের মার্চ মাসে সংসদের সেন্ট্রাল হলে অরুণ জেটলি ও বিজয় মালিয়ার মধ্যে প্রায় ১৫ মিনিট বৈঠক হয়েছিল।
রাহুলের সাংবাদিক বৈঠকের পর কিছুক্ষণ কাটতে না কাটতেই আসরে নেমে পড়ল বিজেপি। বুধবার মালিয়ার বয়ান প্রকাশ্যে আসার পরই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী জেটলি তা অস্বীকার করেছিলেন। তিনি জানান, ২০১৪ সালের পর মালিয়ার সঙ্গে তাঁর আর দেখা হয়নি। কিন্তু এদিন কংগ্রেস বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলতেই বিজেপি মুখপাত্র সম্বিত পাত্র পালটা অভিযোগ এনেছেন, বিজয় মালিয়ার কিংফিশার বিমান সংস্থায় গান্ধী পরিবারের অংশীদারিত্ব আছে। এবিষয়ে যথেষ্ট প্রমাণও আছে বিজেপির কাছে।
এদিন সাংবাদিক বৈঠকে রাহুল গান্ধী জানান, সাংসদ পিএল পুনিয়া সংসদে সেন্ট্রাল হলে মালিয়ার সঙ্গে জেটলির বৈঠকের সাক্ষী। এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে কংগ্রেস সাংসদ পিএল পুনিয়াও উপস্থিত ছিলেন। তাঁর দাবি, বৈঠকটি হয়েছিল বিজয় মালিয়া যেদিন ভারত ছেড়ে লন্ডন পালান (৩ মার্চ)তার ঠিক দু’দিন আগে। কংগ্রেসের দাবি, সেন্ট্রাল হলের সিসি টিভি ফুটেজ চেক করলেই এর প্রমাণ মিলবে। রাহুল গান্ধী এদিন দাবি করেছেন, অর্থ তছরুপকারী অভিযুক্ত একজন শিল্পপতির সঙ্গে অর্থমন্ত্রী জেটলি কেন বৈঠক করলেন এবং বৈঠকে কী কী আলোচনা হয়েছিল তা প্রকাশ্যে বলতে হবে তাঁকে।
তবে এদিন পালটা কংগ্রেসকেও বিঁধেছে বিজেপি। তাদের দাবি রাহুল ও সোনিয়া গান্ধী বিজয় মালিয়ার কিংফিশার সংস্থার বিমান ব্যবহার করতেন যাতায়াতের জন্য। এমনকী দেউলিয়া হয়ে যাওয়া এই বিমান সংস্থায় কংগ্রেস পরিবারের সদস্যদের অংশীদারিত্বও রয়েছে বলে বিজেপির দাবি। এর যথেষ্ট প্রমাণ তাঁদের হাতে আছে বলে দাবি বিজেপি মুখপাত্র সম্বিত পাত্রর।

You may also like