মেহুল চোক্সির থেকে টাকা নিয়েছেন অরুণ জেটলির মেয়ে, ট্যুইট অভিযোগ রাহুলের

ফের কংগ্রেস সভাপতির নিশানায় কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। কয়েক দিন আগেই কংগ্রেস অভিযোগ তুলেছিল, বিজয় মালিয়া দেশ ছাড়ার আগে দেখা করেছিলেন জেটলির সঙ্গে। সেই বিতর্ক কাটতে না কাটতেই নয়া অভিযোগ জেটলি এবং তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে। রাহুলের অভিযোগ, অরুণ জেটলি অর্থ তছরূপের ঘটনায় অভিযুক্ত মেহুল চোক্সিকে দেশ থেকে পালনোর সুযোগ করে দিয়েছেন। কারণ, মেহুল চোক্সির থেকে আর্থিক সুবিধা নিয়েছেন তাঁর মেয়ে।
সোমবার একটি ট্যুইট মারফত এভাবেই ফের দেশের অর্থমন্ত্রী ও তাঁর পরিবারকে কাঠগড়ায় তুললেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। এদিন রাহুল একটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বরেরও উল্লেখ করে বলেছেন, এই অ্যাকাউন্টের মারফতই মেহুল চোক্সির থেকে আর্থিক সুবিধা পেতেন জেটলি কন্যা। রাহুলের অভিযোগ, জেটলির মেয়ে এবং জামাইয়ের সংস্থা চোক্সির কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন, আর তার জন্যই তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেননি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।
যদিও জেটলির জামাই জানিয়েছেন, যে মুহূর্তে তাঁরা জানতে পারেন চোক্সি এরকম দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত, তারপরেই তাঁদের ল-ফার্মের পক্ষ থেকে মেহুল চোক্সির থেকে নেওয়া যাবতীয় অর্থ ফেরত দিয়ে দেওয়া হয়। তবে এখানেও পালটা প্রশ্ন করেছে কংগ্রেস। তাদের প্রশ্ন, মেহুল চোক্সি প্রায় ২৩ হাজার কোটি টাকার জালিয়াতির ঘটনায় অভিযুক্ত, একথা জানার পরও কেন তাদের অ্যাকাউন্টে টাকা ফেরত দিলেন জেটলির কন্যা ও জামাই।
কংগ্রেসের দাবি, বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকার ট্রাভেল এজেন্সির মতো কাজ করছে। অর্থ তছরূপ, জালিয়াতির সঙ্গে যুক্ত বিজয় মালিয়া, নীরব মোদি, মেহুল চোক্সিদের বিদেশে পালিয়ে যেতে সাহায্য করছে। অন্যদিকে সোমবার রাহুল গান্ধীর ট্যুইটটি রিট্যুইট করে সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র দাবি করেছেন, হয় এর জবাব দিন জেটলি, নয়ত মন্ত্রিত্ব থেকে পদত্যাগ করুন। না হলে প্রধানমন্ত্রীর উচিত তাঁকে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া। বিরোধীরা জেটলির পদত্যাগের দাবিতে সরব হবেন বলেও সূর্যকান্ত মিশ্র জানিয়েছেন।

Comments
Loading...