মোদীকে হিটলারের সঙ্গে তুলনা রাহুলের, কংগ্রেস সভাপতিকে পালটা মুসোলিনির উত্তরাধিকারী বলে আক্রমণ বিজেপির

২০১৬ সালে নোটবন্দির পর দেশের বেকারত্ব নিয়ে সম্প্রতি একটি রিপোর্ট তৈরি করেছে ন্যাশনাল স্যাম্পেল সার্ভে অফিস (এনএসএসও)। ওই রিপোর্টে প্রকাশ, গত ৪৫ বছরে বেকারত্ব সর্বোচ্চ হয়েছে ২০১৭-১৮ সালে।
এই রিপোর্টকে হাতিয়ার করে বৃহস্পতিবার ট্যুইট করে প্রধানমন্ত্রীকে ‘ফুরের’ বলে আক্রমণ করেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। জার্মানি শব্দ ‘ফুরের’ শব্দের অর্থ মিলিটারি প্রধান। অ্যাডলফ হিটলারকে ‘ফুরের’ বলে সম্বোধন করা হতো। স্বাভাবিকভাবেই কংগ্রেস সভাপতির এই আক্রমণে বেজায় চটেছে বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপির ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে রাহুলকে ইতালির ফ্যাসিস্ট নেতা মুসোলিনির সঙ্গে তুলনা করে পাল্টা আক্রমণ করা হয়।
উল্লেখ্য, ইংরেজি সংবাদমাধ্যম ‘বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড’ -এ প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, কেন্দ্রীয় সরকারের পরিসংখ্যান ও প্রকল্প রূপায়ণ মন্ত্রকের তত্ত্বাবধানে একটি সমীক্ষা করা হয়। সেই সমীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী, ১৯৭৩ সালে দেশে সবচেয়ে বেশি বেকারত্ব দেখা দিয়েছিল। আর নোটবন্দি পরবর্তী, ২০১৭-১৮ তে দেশে বেকারত্বের হার ৬.১ শতাংশে পৌঁছেছে, যা গত ৪৫ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।
‘বিজনেজ স্ট্যান্ডার্ড’এর এই খবর প্রকাশিত হওয়ার পরেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে কটাক্ষ করে একের পর এক ট্যুইটার পোস্ট করেন রাহুল গান্ধী।
রাহুল একটি ট্যুইটে লেখেন, ফুরের (প্রধানমন্ত্রী) আশ্বাস দিয়েছিলেন, বছরে ২ কোটি চাকরির ব্যবস্থা করবেন। ৫ বছর পরে লিক হওয়া রিপোর্টে জানা গেল দেশের দুরাবস্থার তথ্য। সম্প্রতি মোদী আমলের হওয়া সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের ঘটনা অবলম্বনে ‘উরি: দ্য সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ সিনেমার জনপ্রিয় সংলাপ, ‘হাউ ইজ দ্য জোশ’কে কটাক্ষ করে রাহুল লেখেন, ‘হাউ’স দ্য জবস’।
রাহুলের কটাক্ষে চুপ করে থাকেনি বিজেপি। দলের অফিশিয়াল ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে লেখা হয়, এটা পরিষ্কার যে, উত্তরাধিকার সূত্রে পাওয়া মুসোলিনির অদূরদর্শিতা আর কোনও বিষয়কে না বোঝার ক্ষমতা পেয়েছেন রাহুল। কংগ্রেস সভাপতির মা সোনিয়া গান্ধী যেহেতু জন্মসূত্রে ইতালীয়, সেই সূত্র ধরেই রাহুলকে মুসোলিনির উত্তরাধিকারী বলে আক্রমণ করা হয়। বিজেপির অফিশিয়াল ট্যুইটার থেকে ওই পোস্টে আরও দাবি করা হয়, গত ১৫ মাসে দেশের বেকারত্ব কমেছে তাৎপর্যপূর্ণভাবে।

Comments
Loading...