রাজীব কুমার মামলা শোনার এক্তিয়ার নেই, জানাল বারাসত দায়রা আদালত

এবার বারাসাত জেলা দায়রা আদালতেও ধাক্কা রাজীব কুমারের। তাঁকে আগাম জামিন দেওয়ার এক্তিয়ার নেই জেলা দায়রা আদালতের, মঙ্গলবার এমনই জানালেন বিচারক। রাজীব কুমারকে আবেদন করতে হবে আলিপুর জেলা আদালতে, এমনই জানাল বারাসত দায়রা আদালত।
এর আগে এদিন সকালে বারাসত সিবিআইয়ের বিশেষ আদালত রাজীব কুমারের আগাম জামিনের মামলা ফিরিয়ে দেয়। এরপর বারাসাত জেলা দায়রা আদালতে যান রাজীব কুমারের আইনজীবীরা। মঙ্গলবার দীর্ঘ শুনানির পর বারাসাত জেলা দায়রা আদালতের বিচারক বলেন, এই মামলা শোনার এক্তিয়ার নেই তাঁদের। পাশাপাশি, রাজীব কুমারের আইনজীবীরা তাঁর গ্রেফতারি এড়ানোর জন্য যে অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের আবেদন করেন তাও বারাসাত জেলা আদালতে প্রযোজ্য নয় বলে জানিয়ে দেন বিচারক। রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন জানায় সিবিআই।
এদিন জেলা দায়রা আদালতে রাজীব কুমারের আইনজীবী বলেন, রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ আনা হচ্ছে। ২০১৭ সালে প্রথমবার রাজীব কুমারের নাম আসে সারদা কাণ্ডে, অথচ এই তদন্ত শুরু হয়েছে ২০১৪ সালে। একটি চার্জশিটেও রাজীব কুমারের নাম নেই বলেও সওয়াল করেন তাঁর আইনজীবী। পাশাপাশি তাঁর প্রশ্ন, ৪ দিন আগে পর্যন্ত এই মামলায় সাক্ষী ছিলেন রাজীব কুমার। ৪ দিনের মধ্যে এমন কী হল যে রাজীব কুমার সংশ্লিষ্ট মামলায় সাক্ষী থেকে অভিযুক্ত হয়ে গেলেন?
এরপর বলতে ওঠেন সিবিআইয়ের আইনজীবী। তিনি সওয়াল করেন, রাজীব কুমার একজন সিনিয়র অফিসার হয়েও নিজেই আইন ভাঙছেন। তাঁকে আগাম জামিন দিলে তদন্তের কাজ ব্যাহত হবে বলেও সওয়াল করেন সিবিআইয়ের আইনজীবী। তিনি বলেন, যে সল্টলেকে সারদার সদর দফতর ছিল, সেখানকারই পুলিশ কমিশনার ছিলেন রাজীব কুমার। পাশাপাশি, এদিন ফের সারদা মামলায় তথ্য বিকৃতি এবং শিলংয়ে সিবিআই অফিসারদের অসহযোগিতার অভিযোগ করা হয় রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে।

Comments
Loading...